logo
প্রকাশ: ০১:৪৩:৪৪ PM, শনিবার, আগস্ট ২৬, ২০১৭
৭২ বছর বয়সী বৃদ্ধার প্রেমে ২৭ বছরের তরুণ
অনলাইন ডেস্ক

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে মাত্র তিন মাসের পরিচয় ৭২ বছর বয়সী শ্বেতাঙ্গ বৃদ্ধা অ্যাঙ্গেলার সঙ্গে ২৭ বছরের কৃষ্ণাঙ্গ তরুণ সিজের। এরপর শুরু হয় আলাপন, তা এক পর্যায়ে রূপ নেয় প্রেমের সম্পর্কে। এভাবে কিছুদিন প্রেম করার পর দুজনেই সিদ্ধান্দ নেন বিয়ে করার। যে ভাবা সেই কাজ, বিয়ে করেন দু’জন।

যদিও কাজটা এত সহজ ছিল না। কারণ দুইজন দুই মহাদেশের বাসিন্দা। শ্বেতাঙ্গ অ্যাঙ্গেলা থাকেন ইউরোপের যুক্তরাজ্যে আর সিজে থাকেন অফ্রিকা মহাদেশের নাইজেরিয়ায়। কথায় বলে ভালোবাসা কোনো বাঁধা মানে না।

সিজেকে বিয়ে করার জন্য অফ্রিকার নাইজেরিয়ায় পাড়ি জমান ওই নারী। ওই প্রথম মুখোমুখি দেখা হয় দুজনের। সিজেকে নিজের আত্মার অংশ মনে করেন অ্যাঙ্গেলা। এমনকি তাকে যুক্তরাজ্যে নিয়ে আসার জন্য অপ্রাণ চেষ্টা করছেন অ্যাঙ্গেলা।

অ্যাঙ্গেলার ছয় নাতি-নাতনি আছে। অ্যাঙ্গেলা বলেন, একেবারেই অসাধারণ একজন মানুষ সিজে, যেকোনো নারীই তার সঙ্গ পছন্দ করবে। তিনি আরো বলেন, সিজে আমাকে অনুভব করতে শিখিয়েছে- আমি-ই পৃথিবীর সব থেকে সুন্দরী নারী। আমি অন্তর থেকে বিশ্বাস করি, আমরা একজন অন্যজনের।

তবে সিজেকে নিয়ে ঝামেলা তৈরি করছে ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ, তারা সিজিকে ভিসা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। এ বিষয়ে অ্যাঙ্গেলা বলেন, যেহেতু আমরা স্বামী-স্ত্রী। একসঙ্গে না থাকা পর্যন্ত আমরা লড়াই চালিয়ে যাবো। কিছুতেই আমরা আমাদের সম্পর্ক ভেঙে যেতে দেব না। বিয়ের পর সিজেকে ছেড়ে আসা আমার জন্য খুব কঠিন ছিল। তবে আশা ছিল, শিগরিই আবার আমাদের দেখা হবে। কিন্তু আমার পারিবারিক ভিসা আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।

অ্যাঙ্গেলা আরো বলেন, আমিও ওয়াদাবদ্ধ। যেভাবেই হোক ওকে ভিসা জোগাড় করে দিব, এজন্য আইনজীবীও ভাড়া করেছি আমি। সিজেকে দেখার সঙ্গে এ পর্যন্ত দুইবার আমি তার দেশে গিয়েছি। আমাদের ২০ হাজার পাউন্ড খরচ হয়েছে একে অপরের সঙ্গে দেখা করতে। আমার জোগানো অর্থ খরচ হয়ে যাচ্ছে।

১৬ বছরের সম্পর্কের ইতি টেনে গত ছয় মাস ধরে একাকী বাস করছিলেন অ্যাঙ্গেলা। এর মধ্যে ফেসবুকে সিজের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। অ্যাঙ্গেলা তার ফেসবুকে লিখেছেন, আগের সম্পর্কে শেষ করার পর আমি একাকী বোধ করছিলাম। কিন্তু ছয় মাস পর আমি উদ্যমী এক তরুণের সন্ধান পেলাম। সে আমাকে ফেসবুকে রিকোয়েস্ট পাঠায়। ও সত্যিই সুদর্শন।

তবে তাদের দুজনের বয়সের ব্যবধানটাও জানেন ওই ব্রিটিশ নারী। কিন্তু এ বিষয়টি তারা দুজনেই মেনে নিয়েছেন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]