logo
প্রকাশ: ০৬:৩৮:১৬ PM, শুক্রবার, অক্টোবর ২৭, ২০১৭
স্বপ্ন দেখছেন শামছুল
খাদেমুল মামুন, ঘাটাইল

২৩ বিঘা জমির আনারস ও বাঁশবাগান ভেঙে ৪২ প্রজাতির দেশি-বিদেশি ফলের গাছ নিয়ে ‘শখের বাগান’ করেছেন টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার রসুলপুর গ্রামের শামছুল আলম। এর মধ্যে প্রায় ১১ বিঘা জমিতে তিনি সাড়ে ৪ হাজার লটকন গাছ লাগিয়েছেন। গতবার বেশকিছু গাছে ফল এসেছিল, আগামী বছর প্রায় সব গাছে ফল আসবে। শুধু লটকন বিক্রি করেই তিনি দিনবদল করতে পারবেন বলে আশা করছেন। এছাড়া তার বাগানে রয়েছে সৌদি খেজুর, মালয়েশিয়ার ডোরিয়ান, ফোর কেজি আম, ড্রাগন, রামভুটান, পিচফল, জামানফল, হেমফল, কাইফলসহ বিরল প্রজাতির কিছু ফলের গাছ।
পেশায় স্কুলশিক্ষক শামছুল আলম শ্রেণিকক্ষে শিক্ষার্থীদের পুঁথিগত শিক্ষার পাশাপাশি ‘শখের বাগান’ করে হাতে-কলমে শেখানোর জন্য আদর্শ কৃষি শিক্ষকে পরিণত হয়েছেন। সম্প্রতি তার বাগান ঘুরে দেখা যায়, বাগানের প্রবেশপথে দুই সারিতে পামওয়েল গাছ লাগিয়ে প্রায় ৫০০ মিটারের গেট করেছেন। তার বাগানে রয়েছে সৌদি খেজুর, মালয়েশিয়ার ডোরিয়ান, ফোর কেজি আম, ড্রাগন , রামভুটান, কমলা, বারি-৪ মালটা, লটকন, বাতাবি লেবু, আতা, আমড়া, জাম, বারোমাসি কাঁঠাল, চাইনা-৩ লিচু, আপেল, ডালিম, তাল, বেল, আমলকী, চালতা, কাঠলিচু, গাব, পিচফল, জামানফল, চেরিফল, হেমফল, কাইফল, মিষ্টিগাব, প্লামফল, ছফেদা, অরবড়ই, আলোবোখাড়াসহ প্রায় ৪২ প্রজাতির দেশি-বিদেশি ফলের গাছ। তাছাড়া তার বাড়ির আঙিনায়ও রয়েছে নানা প্রজাতির ফলের গাছ। বেশকিছু গাছে এরই মধ্যে ফল আসতে শুরু করেছে; বাকিগুলোয় আগামী বছরই ফল আসবে বলে আশা করছেন শামছুল আলম। ঘাটাইলের কর্মস্থল থেকে তার বাড়ি প্রায় ২০ কিলোমিটার পূর্ব-উত্তরে। বৃহস্পতিবার স্কুল ছুটির পরই তিনি চলে আসেন বাড়িতে। করেন বাগানের পরিচর্যা। ‘শখের বাগানে’ তাকে সার্বিক সহযোগিতা করেন তার সহধর্মিণী রোকেয়া বেগম।
শামছুল আলম জানান, আনারস ও বাঁশবাগান ভেঙে তিনি অনেকটা শখের বশে ৪২ প্রজাতির দেশি-বিদেশি ফলের বাগান করেছেন। তিনি জানন, সৌদি আরবের খেজুর চাষ আমাদের বাংলাদেশেও সম্ভব। তিনি সৌদি আরব থেকে খেজুর এনে কয়েক মাস পরিচর্যা করে চারা উৎপাদন করেছেন। প্রায় ১১ বিঘা জমিতে তিনি সাড়ে ৪ হাজার লটকন গাছ লাগিয়েছেন। গতবার বেশকিছু গাছে ফল এসেছিল, আগামী বছর প্রায় সব গাছে ফল আসবে। শুধু লটকন বিক্রি করেই তিনি দিনবদল করতে পারবেন বলে আশা করছেন। তার মতে, দেশের প্রতিটি বাড়ির আঙিনা ও পুকুরপাড়ে ফলদ গাছ লাগানো উচিত।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]