logo
প্রকাশ: ১০:২৬:১৯ PM, মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৫, ২০১৭
নবাবগঞ্জে বট-পাকুরের বিবাহ বার্ষিকীতে পাঁচ হাজার অতিথি
দোহার- নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি:

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার নয়নশ্রী গ্রামে বট-পাকুরের অভিনব বিয়ের ১২তম বিবাহ বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। মঙ্গলবার এ উপলক্ষে পাঁচ হাজার লোককে দাওয়াত করে খাওয়ালেন এলাকাবাসী। বিবাহ বার্ষিকী উপলক্ষে বসেছে ৪ দিনব্যাপি গ্রাম্য মেলা।

মঙ্গলবার বিকেলে সরেজমিনে দেখা যায়, খাওয়া-দাওয়ায় ব্যস্ত লোকজন। স্থানীয়রা জানান, প্রতি বছর বাংলা সনের ১৮ অগ্রহায়ন বট-পাকুরের বিয়েতে এলাকাবাসীসহ দোহার, নবাবগঞ্জ, কেরানীগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জ উপজেলার থেকে কয়েক হাজার মানুষ আসে।  মেলায় হিন্দু, মুসলমান ও খ্রীস্টান ধর্মাবলম্বীদের আগমন ঘটে। এর মধ্যে বেশির ভাগ অবিবাহিত যুবক-যুবতীদের উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে। খিচুড়ি-পায়েস দিয়ে তাদের আপ্যায়ন করা হয়।  

অনুষ্ঠানের আয়োজক কমল পাল জানান, আমি স্থানীয় রাহেন সাধুর ভক্ত ছিলাম। তিনি মুসলমান ধর্মাবলম্বী ছিলেন। তাঁর আদেশে ৩৮ বছর আগে ইছামতি নদীর পাড়ে দুটি বট-পাকুর গাছ রোপন করি। ২০০৬ সালের দিকে বাড়িতে বিয়ের বয়সী চার ছেলে-মেয়ে ছিল কিন্তু তাদের বিয়ে হচ্ছিল না কিছুতেই। এক রাতে আমি স্বপ্নে দেখলাম ঐ বট-পাকুর গাছের বিয়ে দিলে আমার ছেলে মেয়েদের বিয়ে হবে। ঐ বছরের বাংলা সনের ১৮ অগ্রহায়ন বট-পাকুরের বিয়ে দিলাম। ঐ বছরই আমার বড় ছেলে বাবুল পালের বিয়ে হয়। পরের বছর তার বড় মেয়ে কল্যানী পালের। এভাবে তার সব ছেলে মেয়ের বিয়ে হয়েছে। সেই থেকে দীর্ঘ ১২ বছর যাবত এ উৎসব পালন করে আসছেন তিনি। এলাকাবাসীও তাকে সহায়তা করছেন।

অনুষ্ঠানে আসা মালতী রানী জানান, পরিবারের মঙ্গল কামনায় প্রতি বছর এ অনুষ্ঠানে এসে থাকি। বট-পাকুরের জন্য মানতের কাপড়, মিষ্টি, সিদুর দিয়ে গেছি। আমরা বিশ্বাস করি, এখানে এসে কিছু মানত করলে পাওয়া যায়। স্থানীয় বাসিন্দা মো. ফারুক জানান, এখানে ঝাড়ফোঁক করা হয় না। মানত করে যে যা খুশি দিয়ে যায়। অনুষ্ঠানটি এলাকায় উৎসবে পরিণত হয়েছে।

রাহুতহাটি গ্রামের হেনা বেগম জানান, গত বছর অসুস্থ ছিলাম। মানত করে গিয়েছিলাম ‌'সুস্থ হলে নতুন কাপড় দিবো'। তাই এবছর নতুন কাপড় দিয়ে গেলাম। এবারও একটা মানত করেছি দেখি মনের বাসনা পূরণ হয় কি না।

নয়নশ্রী বাসিন্ধা সাবেক তাঁতী লীগ নেতা হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, এলাকার সকল ধর্মের লোকজন একত্রিতভাবে এই মেলার আয়োজন করে। আমরা তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতা করার চেষ্টা করি।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]