logo
প্রকাশ: ১০:৪৪:০৮ AM, শনিবার, জুন ২, ২০১৮
সদরপুরের বাঙ্গি যাচ্ছে সারা দেশে
বিকে সিকদার সজল, ফরিদপুর

এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলায় বাঙ্গির বাম্পার ফলন হয়েছে। বাম্পার ফলনের সঙ্গে দাম বেশি পাওয়ায় হাসি ফুটেছে কৃষকের মুখে। জেলার চাহিদা পূরণ করে দেশের বিভিন্ন স্থানে যাচ্ছে সদরপুরের বাঙ্গি। এছাড়া ফরমালিনমুক্ত থাকায় রমজানের নিত্যদিনের খাদ্য তালিকার চাহিদা পূরণে বিশেষ ভূমিকা রাখছে বাঙ্গি। রমজানের প্রথমদিকে ওঠা বাঙ্গির দাম ভালো পাওয়ায় কৃষকরাও বেশ লাভবান। বর্তমানে কৃষকেরা মাঠ থেকে বাঙ্গি তোলা ও বাজারজাতকরণে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

সরেজমিন দেখা যায়, খুব ভোর থেকেই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের কৃষকরা তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বাঙ্গি তোলার কাজে ব্যস্ত সময় পার করছে। কেউ কেউ ক্ষেত থেকে তোলা বাঙ্গি ভ্যান, নসিমন করে বাজারে নিয়ে যাচ্ছে। বাঙ্গি ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের মটুকচর, কাটাখালি, আবুলের মোড়, বাঁধানোঘাট, ভাষানচর ইউনিয়নের নতুনবাজার, কারিরহাট, আমিরাবাদ এলাকায় প্রতিদিন সকাল বিকাল হাট বসছে। হাটগুলোতে রমজানের শুরুতে মধ্যম ও বড় শ্রেণির ১০০ বাঙ্গির দর ছিল ২ হাজার ৫০০ টাকা। বাছাইকৃত বাঙ্গির শ’ বিক্রি হচ্ছে ৩ হাজার থেকে ৩ হাজার ৫০০ টাকা পর্যন্ত।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. ফরহাদুল মিরাজ জানান, এ বছর উপজেলার ৫ ইউনিয়নে ৫১০  হেক্টর জমিতে বাঙ্গির আবাদ হয়েছে। বাঙ্গি উৎপাদনে প্রতি হেক্টরে খরচ হয়েছে ২৫ হাজার থেকে ৩০ হাজার টাকা। কৃষকেরা বিক্রি করছেন ৮০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা। তিনি আরও জানান, কৃষকের বিভিন্ন প্রকার পরামর্শ ও সেবা দিয়ে সহযোগিতা করা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ অঞ্চলের কৃষকরা আরও বেশি ভালো লাভবান হবেন। কাটাখালি এলাকার কৃষক আবুল হোসেন জানান, তিন বিঘা জমিতে এ বছর বাঙ্গির আবাদ করেছেন। ফলন ভালো হয়েছে। দামও ভালো পাচ্ছেন। শৈলডুবি এলাকার চান মিয়া জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর বাঙ্গির চাহিদা বেড়েছে। প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বাঙ্গি কিনতে ব্যবসায়ীরা আসছেন। 

ভাষানচর এলাকার মো. সোবাহান জোয়ার্দার জানান, খেতের বাঙ্গি বিক্রি করে দিয়েছে, প্রায় অর্ধলাখ টাকা লাভ করেছে এ বছর। দোহার থেকে হাটে বাঙ্গি কিনতে আসা ব্যবসায়ী সৈয়দ সামছু মাতুব্বর জানান, সদরপুরের বাঙ্গির মান ভালো এবং দামও একটু কম তাই এখানে প্রতি বছরই বাঙ্গি কিনতে আসে। এ বাঙ্গি ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে গাড়িযোগে পাঠান তিনি। তার মতো অনেকেই এখানে আসেন বাঙ্গি কিনতে।

ভষানচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছমির ব্যাপারী জানান, এ বছর বাঙ্গির ফলন ভালো হয়েছে। সদরপুরের বাঙ্গি জেলার চাহিদা পূরণ করে দেশের বিভিন্ন জেলার চাহিদাও পূরণ করছে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]