logo
প্রকাশ: ০২:৩৭:১১ AM, মঙ্গলবার, আগস্ট ৭, ২০১৮
নিরাপদ সড়ক সবার দরকার

আইন যত কঠিনই হোক সড়ক খুব বেশি নিরাপদ হবে না। মানুষ মরতেই থাকবে। কারণ যিনি গাড়ি চালান তাকে লাইসেন্স প্রদানের আগে সচেতন করা হয়নি। ট্রাফিক আইন সম্পর্কে অনেক কিছু জানানো-শেখানো হয়নি তাদের। এটি করা অতি জরুরি। তিনি জানেন না, দুর্ঘটনা ঘটলে তিনিও মারা যেতে পারেন কিংবা তার পরিবারের সবাই পথে বসে যাবে, না খেয়ে মরবে। অন্যদিকে আমাদের সবাইকে নিরাপদ সড়কের বিষয়ে নিম্নের বিষয়গুলোয় আন্তরিক হওয়া প্রয়োজন। ড্রাইভারদের অনেকেই মাদক গ্রহণ করে। বাস ড্রাইভারদের যাত্রী বেশি নেওয়ার প্রতিযোগিতাও হয়। তা তদন্ত করতে হবে। যাত্রী সংখ্যা কম হলেও ড্রাইভারের বেতন যথাযথভাবে প্রদান করতে হবে। বেশি যাত্রী পরিবহন করলে ড্রাইভার ও হেল্পার বেশি আর্থিক সুবিধা পান কি না, তা তদন্ত করতে হবে। ট্রাফিক পুলিশ ব্যবস্থাপনাকে ঢেলে সাজাতে হবে। সিনিয়র পুলিশ অফিসারদের মাঝে মাঝে সিভিল ড্রেসে অচেনা গাড়িতে করে সড়কে ট্রাফিক সার্জেন্টের কার্যক্রম মনিটর করতে হবে। প্রয়োজনে কঠোর বিভাগীয় শাস্তি দিতে হবে দায়িত্বে অবহেলার কারণে। এ কথাও মনে রাখতে হবে যে, অনেক পুলিশ সদস্য কঠোর পরিশ্রম করে দায়িত্ব পালন করেন। সড়ক-মহাসড়কের নির্মাণকাজ অনেক ক্ষেত্রে ত্রুটিপূর্ণ। বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলীকে এ বিষয়ে কাজে লাগাতে হবে। বাসস্ট্যান্ডগুলো সড়কের একটু সাইডে নিতে হবে এবং যাত্রীরা যেন নিরাপদে বাস থামানোর পর উঠা-নামা করে তা নিশ্চিত করতে হবে। কোনোক্রমেই চলন্ত অবস্থায় বাসে উঠা-নামা করতে পারবে না। করলেই জরিমানা। মহাসড়ক উন্নত করতে হবে। সড়ক নিয়মিত মেরামত করতে হবে। ট্রাফিক পুলিশের জনবল দ্বিগুণ করতে হবে। সবক্ষেত্রে চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে। ছাত্রছাত্রীদের আন্দোলন শতভাগ সফল। এখন প্রশাসনকে তা বাস্তবায়নের সময় দিতে হবে। 

মো. বজলুল কবীর ভূঞা
মহাপরিচালক
বিসিএস কর একাডেমি

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]