logo
প্রকাশ: ১১:৫১:১৯ PM, বুধবার, আগস্ট ১৫, ২০১৮
কর্মপরিকল্পনার প্রয়োজনীয়তা
তারুণ্য প্রতিবেদক

জীবনে উন্নতি করতে চাইলে এবং সফল হতে চাইলে পরিকল্পনা খুব জরুরি। পরিকল্পনা ছাড়া জীবন হালবিহীন নৌকার মতো। পরিকল্পনা ছাড়া লক্ষ্যে পৌঁছানো কঠিন।

নিজের পারফরম্যান্স ঠিক রাখা : সব সময় নিজের পারফরম্যান্স ঠিক রাখার চেষ্টা করুন। আপনার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আপনার কাছে প্রশংসা করেছেন? তবে বুঝতে হবে আপনি সঠিক পথে আছেন। অর্থাৎ কর্মক্ষেত্রে আপনার পারফরম্যান্স ঠিক আছে। সেটাকে ধরে রাখার চেষ্টা করুন। জানিয়েছেন ফেলসেন ইন্স্যুরেন্স সার্ভিসের প্রেসিডেন্ট পল ফেলসেন।
সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করুন : সমস্যা কখনও জিইয়ে রাখার চেষ্টা করবেন না, সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করুন।
ইউনিটি পয়েন্ট হেলথের ম্যানেজার, মার্কেটিং এবং যোগাযোগকারী বলেন, আমার কাছে কোনো সমস্যা নিয়ে আসার আগে নিজে সেটা সমাধান করার চেষ্টা করুন। কিছু সমস্যা সঠিক মানুষের সাহায্য দ্বারা ঠিক করা প্রয়োজন হয়। আবার কিছু ক্ষেত্রে সমস্যার সমাধান অনেকে আলসেমির জন্য ফেলে রাখে।
নিজেকে ছাড়িয়ে যান কাজের নতুনত্বে : কীভাবে নিজেকে আরও বেশি দক্ষ করা সম্ভব, কীভাবে নিজেকে আরও পরিণত করা সম্ভব, কীভাবে নিজের কাজকে অন্য সবার চেয়ে আরও ভালো করে গড়ে তোলা সম্ভবÑ এসব কিছু ভাবতে শুরু করুন এখন থেকেই। একই সঙ্গে শুরু করুন সেইরূপ কাজ করা। ব্রেইনস্ট্ররমিং গ্রুপে যোগ দিন। বাড়তি কোর্স করুন। মোট কথা, নিজেকে বিগত দিনের চেয়ে আরও উন্নত করে গড়ে তুলুন।
‘পারব না’ ভাবা বন্ধ করুন : মানুষের অসাধ্য কিছু নেই। তাই কোনো কাজ একটু কঠিন মনে হলেই হাল ছেড়ে দেবেন না। বরং বারবার চেষ্টা করুন। অন্য কেউ পারলে আপনিও পারবেন। শুধু প্রয়োজন আত্মবিশ্বাস আর চেষ্টা। 
অযথা ইন্টারনেটে ঘোরাঘুরি করা বন্ধ করুন : হয়তো অনলাইন কোনো দোকান থেকে বই কিনতে চাচ্ছেন অথবা ফেইসবুকে বন্ধুর সঙ্গে কিছু কথা বলতে চাচ্ছেন, যার ফলে ইন্টারনেটের বিভিন্ন সাইটে ঘোরাঘুরি করছেন। এতে কোনো অসুবিধা একেবারেই নেই। কিন্তু মনে রাখতে হবে, অফিস টাইমের মাঝে এটা একেবারেই উচিত হবে না। এতে করে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা খুবই অখুশি হন। কাজের সময়ের মাঝে অন্য বিষয় নিয়ে ইন্টারনেটে পড়ে থাকার ব্যাপারটি অনেকেই গ্রহণযোগ্য মনে করেন না।
নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করুন : শুধু প্রতিষ্ঠানের লাভের জন্যই নয়, নিজের দক্ষতা, পরিচিতি ও উন্নত ক্যারিয়ার তৈরি করার লক্ষ্যেও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ও নেটওয়ার্ক গড়ে তুলুন। ডেলইত্তে প্রাইভেট এন্টারপ্রাইজের লিডার মিশেল অ্যারোনেস্টি একথা বলেছেন। তিনি আরও জানান, এক বছরের মধ্যে দশটি নতুন নেটওয়ার্ক অথবা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলার চেষ্টা করা উচিত।
চিন্তা করার জন্য কিছুক্ষণ থামুন : আমরা সবাই ব্যস্ততাকে কেন্দ্র করে দৌড়াচ্ছি। যার ফলে সুস্থিরভাবে চিন্তা করার জন্য আমাদের একেবারেই সময় নেই। অথচ প্রতিটি বিষয় নিয়েই চিন্তা করা ও ভাবা প্রয়োজন রয়েছে। রিয়েল এস্টেট এন্টারপ্রাইজ এবং ‘দ্য বিজনেস অব গুড’ বইয়ের লেখক জেসন হারবার বলেছেন, নিজের কাজ ও চিন্তার মধ্যে স্থান তৈরি করার চেষ্টা করুন। এতে করে কোনো বিষয়কে পরিষ্কারভাবে ভাবার সুযোগ পাবেন।
কর্মক্ষেত্রে খুশি থাকার চেষ্টা করুন : কর্মক্ষেত্রে নিজের কাজ ও চারপাশের অবস্থা নিয়ে কখনোই অসন্তুষ্ট হওয়া যাবে না। অল্পতেই খুশি থাকার চেষ্টা করতে হবে সবসময়। সহকর্মীদের সঙ্গে গল্প করা, নতুন কাজের খোঁজ করা, নতুন দায়িত্ব গ্রহণ করার মাধ্যমে কর্মক্ষেত্রকে আনন্দময় করে তুলতে হবে নিজের জন্য।
সংখ্যা নয় মানের দিকে লক্ষ রাখুন : ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের খুশি রাখতে অনেকগুলো প্রজেক্টে নিজেকে সংযুক্ত করার কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ, একই সঙ্গে অনেকগুলো প্রজেক্টে সংযুক্ত থাকার ফলে কোনো প্রজেক্টের কাজই যথাযথভাবে শেষ করা সম্ভব হবে নয়। এতে ফলাফল হবে হিতে বিপরীত। যে কারণে, বুঝেশুনে সীমিত সংখ্যক কাজের সঙ্গে নিজেকে জড়িত রাখতে হবে। তবে নিজের প্রতিটি কাজ যথাযথভাবে শেষ করার চেষ্টা করতে হবে।
নতুন বছরে ভাবনা : এখন থেকেই ভাবা শুরু করুন আগামী বছর নিজ কর্মক্ষেত্র থেকে কী পেতে চান আপনি? নিজের ক্যারিয়ারের ক্ষেত্রে কী অবদান রাখতে চান? লক্ষ্য যেটাই হোক না কেন, নতুন বছর শুরু হওয়ার আগে থেকেই সেইভাবে কাজ করা শুরু করে দিন। তবেই নতুন বছরে অর্জন করা সম্ভব হবে নিজের লক্ষ্য।
প্রশ্ন করতে কখনোই ভয় পাবেন না : অনেকেই ভেবে থাকেন, প্রশ্ন করা দুর্বলতার লক্ষণ! অথবা যারা কিছুই জানে না তারাই প্রশ্ন করেন। এমন ধারণা একেবারেই ভুল। বিভ্রান্তির মধ্যে না থেকে কাজ সম্পর্কিত যে কোনো বিষয় নিয়ে সহকর্মী কিংবা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে প্রশ্ন করুন। তথ্য জানুন। এতে করে নিজ কাজের ক্ষেত্রে উপকার হবে।
শুধু নিজেকে নিয়ে নয়, অন্যের কল্যাণেও ভাবুন : শুধু নিজের ব্যাপারে ভাবা নয়, অন্যের কল্যাণের কথাও ভাবতে হবে। এক্সিকিউটিভ ক্রিস্টিনা হার্টম্যান বলেছেন, কর্মক্ষেত্রে শুধু নিজের ব্যাপারে চিন্তা করা উচিত নয়। কোনো কিছু বলার আগে নিজেকে অন্যের স্থানে বসিয়ে চিন্তা করতে হবে। এরপর ভাবতে হবে, যে কথাটি বলতে চাচ্ছেন সেটা অন্যের জন্য উপকারী হবে কি না।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]