logo
প্রকাশ: ০১:০২:০৯ AM, সোমবার, আগস্ট ২০, ২০১৮
বাংলাদেশের আইটি খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী জাপান
প্রযুক্তি প্রতিবেদক

জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশনের (জেট্রো) আবাসিক প্রতিনিধির নেতৃত্বে সে দেশের ১০টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের ১৫ সদস্যের এক ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল বৃহস্পতিবার ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশে তথ্য প্রযুক্তি খাতে জাপান ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ এবং এ দেশের কম্পিউটার প্রকৌশলীদের সে দেশে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। জেট্রো জাপানের ট্রেড অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি মিনিস্ট্রির অধীন একটি প্রতিষ্ঠান।

প্রতিনিধি দল মন্ত্রীকে জানায়, জাপানে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে প্রচুর আইটি ইঞ্জিনিয়ারের চাহিদা রয়েছে। তারা বাংলাদেশি কম্পিউটার প্রকৌশলীদের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, এ দেশের আইটি ইঞ্জিনিয়াররা অত্যন্ত দক্ষ ও পরিশ্রমী। তাই জাপানের বিভিন্ন আইটি প্রতিষ্ঠানের জন্য বাংলাদেশ থেকে প্রাথমিকভাবে ৪০০ আইটি ইঞ্জিনিয়ার নিয়োগ করতে চায়। প্রতিনিধি দল জাপান যেতে ইচ্ছুক প্রকৌশলীদের জাপানি ভাষা শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করে।

গেল কয়েক মাসে জাপানে বাংলাদেশের ৩ শতাধিক আইটি ইঞ্জিনিয়ারের কর্মসংস্থান হয়েছে। চলতি বছরের মে মাসে তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ‘জাপান আইটি উইক’-এ অংশগ্রহণ করেন। এ সময় তিনি জাইকা, রিক্রুয়িটসহ সে দেশের ৯টি খ্যাতনামা প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর সঙ্গে বাংলাদেশের আইটি খাতের উজ্জ্বল সম্ভাবনা নিয়ে মতবিনিময় করেন। ওই মতবিনিময়ের ফলোআপ হিসেবে এ খ্যাতনামা জাপানি কোম্পানির প্রতিনিধিরা বাংলাদেশ সফর করছেন। তিনি জাপানে কর্মরত বাংলাদেশি কম্পিউটার প্রকৌশলীদের সঙ্গেও মতবিনিময় করেন। তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী বলেন, জাপান বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের বন্ধু ও উন্নয়ন সহযোগী। জাপান বাংলাদেশের ভালো ব্যবসা ক্ষেত্র। অনুরূপভাবে বাংলাদেশও জাপানের উত্তম ব্যবসায়িক স্থান।

তিনি প্রতিনিধি দলকে জানান, বাংলাদেশে আইসিটি বিভাগের অধীনে বিভিন্ন ভাষা শেখানোর জন্য ‘সারা দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন’ প্রকল্প চালু রয়েছে। এ প্রকল্পের অধীনে ৬৫টি ল্যাবে জাপানি ভাষাসহ বিভিন্ন ভাষা শেখানো হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য অত্যন্ত চমৎকার পরিবেশ বিরাজ করছে। বর্তমান সরকার দেশে উচ্চ প্রযুক্তিনির্ভর শিল্প গড়ে তুলতে বিভিন্ন স্থানে হাইটেক পার্ক গড়ে তুলছে। আইটি খাতে বিনিয়োগের জন্য সরকার হাটটেক পার্কে জমি বরাদ্দ প্রদান, শতকরা ১০ ভাগ ক্যাশ ইনসেনটিভ, ১০ বছর ধরে ট্যাক্স হলিডে প্রদান, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ, যোগাযোগসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে।

এরই মধ্যে এসব পার্কে আগ্রহী হয়ে উঠেছে বিদেশি বিনিয়োগকারীরা। স্যামসাং ও হুয়াইসহ বিভিন্ন কোম্পানি মোবাইল ফোন, ট্যাব, ল্যাপটপ ও এসবের যন্ত্রাংশ উৎপাদন শুরু করেছে। কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কে শ্রীলঙ্কা, কোরিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, চীন এবং সৌদি আরবের কয়েকটি প্রতিষ্ঠান শিল্পকারখানা স্থাপন করার জন্য কার্যক্রম শুরু করেছে। তিনি জাপানি বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে আইটি খাতসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের মাধ্যমে সরকার প্রদত্ত সুযোগ-সুবিধা গ্রহণের আহ্বান জানান।

মতবিনিময় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আল্ট্রা এক্স এশিয়া প্যাসিফিক ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তাতসিয়াও হাতুরি, ভাইস প্রেসিডেন্ট চাইহারু নাকাবাইয়াসাহি মাসামি, ইসিহবাসহির পরিচালক ও ড্রিম অনলাইন ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিরোওসি হোরি, পাসটেম সায়সন ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তাকাহিরো মুরাকামি ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইয়াসানোরি ইয়ামাজাকি, ইনফরমেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড টেকনোলজি কোম্পানি লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ঝান তাকাই, রিকোটা ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিকা ওহাসিহি, কলোওয়াইড কোম্পানি লিমিটেডের অ্যাসোসিয়েট মেম্বার, ইয়ামা ওউয়ামাডা বিটস্ট্রা ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আইহিরো মায়েদা, ইউনিভারেল সিস্টেম ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেইতারো ফুজি, বিজেআইটি ইন্টারন্যাশনাল করপোরেশনের চেয়ারম্যান জে এম আকবর প্রমুখ।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]