logo
প্রকাশ: ০৫:৪২:২০ PM, শুক্রবার, আগস্ট ৩১, ২০১৮
রোহিঙ্গা নিয়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর মিথ্যাচার
অনলাইন ডেস্ক

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকালের ছবি নিয়ে প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। রোহিঙ্গা সংকটের ওপর সাদা-কালো ছবির সংকলনের নতুন একটি বই প্রকাশ করেছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। বইয়ে ছবির শিরোনামগুলোও লিখেছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী।

রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে প্রকাশিত বইটিতে ভুয়া তথ্য ও ছবি দিয়ে বিভ্রান্তিকর অবস্থা সৃষ্টি করার ঘটনাটি ধরা পড়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের অনুসন্ধানে।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী কর্তৃক প্রকাশিত বইয়ে থাকা একাধিক গুরুত্বপূর্ণ ছবি ও তথ্য ভুয়া। এতে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে বাঙালিদের ওপর পাকিস্তানের বর্বরতার ছবিকে রাখাইনে রোহিঙ্গা কর্তৃক বৌদ্ধনিধনের ছবি হিসেবে প্রচার করা হয়েছে।

শুক্রবার এ নিয়ে এক বিশেষে প্রতিবেদনে রয়টার্স বলেছে, গত জুলাইয়ে ‘মিয়ানমারের রাজনীতি ও সেনাবাহিনী : পর্ব ১’ (মিয়ানমার পলিটিক্স অ্যান্ড দ্য টাটমাডো : পার্ট ১) শিরোনামে ১১৭ পৃষ্ঠার বইটি প্রকাশ করেছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর জনসংযোগ ও মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধবিভাগ।


ওই বইয়ে ১৯৪০-এর দশকে মিয়ানমারের দাঙ্গার অধ্যায়ে একটি ছবির বিবরণে বর্মী ভাষায় রোহিঙ্গাদের হাতে বৌদ্ধ হত্যার ছবি হিসেবে বোঝানো হয়েছে। তবে রয়টার্সের অনুসন্ধানে ছবিটি আসলে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি বাহিনীর বর্ববতার বলে প্রমাণ পাওয়া যায়।

বইটিতে রোহিঙ্গাদের ওপর মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর নির্যাতন-নিপীড়নের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। সহিংসতার জন্য বাঙালিদের দোষারোপ করা হয়েছে।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বইটিতে আরও দুটি ভুয়া ছবি পাওয়া গেছে যেগুলো রাখাইন অঞ্চলের আর্কাইভ ছবি বলে দাবি করা হয়েছে। তবে রয়টার্সের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, ওই তিনটি ছবির মধ্যে দুটি তোলা হয়েছে বাংলাদেশ ও তানজানিয়ায়।

মিয়ানমারের রাখাইন ছেড়ে পালাতে থাকা রোহিঙ্গাদের একটি ছবির ক্যাপশনে মিথ্যাচার করে লেখা হয়েছে, বাংলাদেশ থেকে মিয়ানমারে প্রবেশ করছে রোহিঙ্গারা।

গত বছরের ২৫ আগস্ট নিরাপত্তা বাহিনীর তল্লাশি চৌকিতে হামলার পর রাখাইনে কঠোর অভিযানে নামে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। এরপর থেকেই নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে লাখ লাখ রোহিঙ্গা।

জাতিসংঘসহ বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থা রোহিঙ্গাদের ওপর এমন বর্বরতাকে জাতিগত নিধনযজ্ঞ হিসেবে বর্ণনা করেছে। তবে শুরু থেকেই রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। 

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]