logo
প্রকাশ: ১২:১১:১৯ AM, বুধবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০১৮
মাসআলা
গ্রন্থনা : মোস্তফা কামাল গাজী

সৌন্দর্য বর্ধন, ফ্যাশনদুরস্ত বা শারীরিক ত্রুটি নিরাময় করতে অনেকেই প্লাস্টিক সার্জারি করে থাকেন। চিকিৎসাবিজ্ঞানে এ ধরনের সার্জারিকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। এক. প্লাস্টিক সার্জারি; দুই. কসমেটিক সার্জারি।

প্রয়োজনীয় শারীরিক ত্রুটি সারাতে যে সার্জারি করা হয়, তাকে প্লাস্টিক সার্জারি বলা হয়। ইসলাম এর অনুমোদন দিয়েছে। যেমন, পোড়া বা আঘাতজনিত ক্ষত সারিয়ে তোলা, ক্যান্সারে আক্রান্ত অঙ্গ বা টিউমার অপসারণের পর ক্ষতস্থানে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনা অথবা ঠোঁটকাটা, তালুকাটা, অতিরিক্ত আঙুল বা অন্যান্য জন্মগত ত্রুটি দূর করা।

হাদিসে রসুল (সা.) থেকে এ ধরনের অপারেশন বা সার্জারির অনুমতির ইঙ্গিত পাওয়া যায়। একটি হাদিসে এসেছে, ‘কুলাব যুদ্ধে সাহাবি আরফাজা বিন আসয়াদ (রা.) এর নাক কেটে যায়। তিনি রুপার একটি কৃত্রিম নাক বানিয়ে নেন। কিন্তু এতে দুর্গন্ধ দেখা দেয়। পরে রাসুলুল্লাহ (সা.) এর আদেশে একটি স্বর্ণের নাক বানিয়ে নেন।’ (আবু দাউদ : ৪২২৬)।

সুতরাং বোঝা গেল, প্রয়োজনীয় শারীরিক ত্রুটি সারাতে সার্জারি করা বৈধ। (জাস্টিস তাকি উসমানি, তাকমিলাতু ফাতহিল মুলহিম: ৪/১৯৫)। 

সৌন্দর্য বৃদ্ধি এবং নিজেকে আরও আকর্ষণীয় করার জন্য যে সার্জারি করা হয়, তাকে কসমেটিক সার্জারি বলে। যেমন, নাক, চিবুক, ঠোঁট, চোখের পাতা, কান, স্তন এসব অঙ্গের সার্জারি করে আকর্ষণীয় করে তোলা। ইসলাম এটাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। কেননা আল্লাহ তায়ালা বলেন, ‘নিশ্চয়ই আমি মানুষকে উত্তম অবয়ব দিয়ে সৃষ্টি করেছি।’ (সূরা তিন : ৪)। এরপরও নিজেকে অনাকর্ষণীয় মনে করে আল্লাহর সৃষ্টিতে পরিবর্তন সাধিত করা হারাম। কোরআনে এটাকে শয়তানের কর্ম বলা হয়েছে।

হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘আল্লাহ তায়ালা ওই নারীর ওপর অভিশাপ দিয়েছেন, যে অন্য নারীর মাথায় কৃত্রিম চুল সংযোজন করে বা নিজ মাথায় চুল সংযোজন করায়; আর যে নিজের শরীরে উল্কি আঁকে বা অন্যকে আঁকিয়ে দিতে বলে।’ (বোখারি : ৫৯৩৭)।

 

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]