logo
প্রকাশ: ০৮:২৫:১৯ PM, মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮
ভৈরবে ওয়ার্ড আ.লীগ সভাপতি গুলিবিদ্ধ
ভৈরব প্রতিনিধি

কিশোরগঞ্জের ভৈরবের পল্লীতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান দুর্বৃত্তের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। আব্দুল মান্নান উপজেলার সাদেকপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বর্তমান ইউপি সদস্য। তিনি একই ইউনিয়নের রসুলপুর গ্রামের বাসিন্দা। 

মঙ্গলবার দুপুরে সাদেকপুর থেকে অস্থায়ী ইউনিয়ন পরিষদ মৌটুপী যাওয়ার পথে তিনি এই হামলার শিকার হন। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কুলিয়ারচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আব্দুল মান্নানকে জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

স্থানীয়রা জানায়, সাদেকপুর ইউনিয়নের লোকজন দুটি ভাগে বিভক্ত। একপক্ষের নেতৃত্ব দিচ্ছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও সাদেকপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ফজলুল হক মাস্টার। অপরপক্ষের নেতৃত্বে রয়েছেন বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সরকার মো. সাফায়েত উল্লাহ। তারা দুজনই ক্ষমতাসীন দলের নেতা। ফলে আধিপত্য ও প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের দফায় দফায় সংঘর্ষে অহিদ মিয়া, মোবারক হোসেন, মানিক মিয়া ও সিদ্দিক মিয়া নিহত হন। এছাড়াও কয়েক’শ লোক আহত হয়। এসব ঘটনাকে কেন্দ্র করে একে অপরের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে। যদিও প্রতিপক্ষের লোকজন মানিক মিয়াকে পরিকল্পিত হত্যা করে। 

এছাড়াও গেল কয়েক দিন আগে নিহত সিদ্দিক মিয়া আরেক নেতা সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হকের সর্মথক ছিলেন। তাছাড়া নিহত অহিদ মিয়া, মোবারক হোসেন ও মানিক মিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ফজলুল হক মাস্টারের সমর্থক ছিলেন।

এদিকে ৮নং ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান মানিক হত্যাসহ বেশ কয়েকটি মামলা আসামি। তিনি বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান সরকার মো. সাফায়েত উল্লাহর সমর্থক। হত্যা মামলায় দীর্ঘদিন কারাবাসের পর বেশ কিছু দিন আগে জামিনে মুক্ত হন। এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার দুপুরে সাদেকপুর থেকে অস্থায়ী ইউনিয়ন পরিষদ মৌটুপী যাওয়ার পথে হামলার শিকার হন। এ সময় তার ডান হাতে গুলিবিদ্ধ হয়।
আহত আব্দুল মান্নানের পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, নিহত মানিকের ছেলে সুজন তার লোকজন নিয়ে এই হামলা চালায়। 

এছাড়াও সাদেকপুর ইউপি চেয়ারম্যান সরকার মো. সাফায়েত উল্লাহ জানান, ইউপি সদস্য হিসেবে তার পরিষদের একটি সভায় যোগ দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু, আসার পথে প্রতিপক্ষের লোকজন তার ওপর এলোপাতাড়ি গুলি চালায়। পরে তিনি ডান হাতে গুলিবিদ্ধ হন।

অভিযোগ অস্বীকার করে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ফজলুল হক মাস্টার জানান, আমার ভাতিজা বাড়িতেই নেই। আমি লোকজনের মুখে শুনেছি, তিনি (আব্দুল মান্নান) নাকি সব সময় সঙ্গে অবৈধ অস্ত্র রাখতেন। অসাবধানতাবশত গুলি বেরিয়ে পড়ে। এতে তিনি আহত হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করে ভৈরব থানার ওসি (তদন্ত) বাহালুল খান বাহার জানান, পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে ধারণা করা হচ্ছে প্রতিপক্ষের লোকজন এই হামলা চালাতে পারে। বিষয়টি খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]