logo
প্রকাশ: ০৯:৪২:২০ PM, মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৮
হালিশহর থেকে অপহৃত মাদ্রাসাছাত্র চাঁদপুরে উদ্ধার
চাঁদপুর প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের হালিশহর থেকে অপহরণের ৭ দিন পর মাদ্রাসাছাত্র জাশেদুল ইসলামকে (১৪) চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ চাঁদপুর শহরের বিপনীবাগ এলাকা থেকে উদ্ধার করেছে। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মমিনুল ইসলাম বিপনীবাগ কাঁচা বাজার থেকে জাশেদুলকে উদ্ধার করে চাঁদপুর মডেল থানায় নিয়ে যায়। জাশেদুলকে উদ্ধারের পর তার পিতা-মাতার কাছে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে খবর পাঠানো হয়েছে বলে পুলিশ জানান। এ ঘটনায় চাঁদপুর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে বলে চাঁদপুর মডেল থানা সূত্রে জানা গেছে।

অপহরণ চক্রের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া মাদ্রাসাছাত্র জাশেদুল ইসলাম জানায়, সে গত বুধবার ৫ সেপ্টেম্বর দুপুর অনুমান সাড়ে ১২টায় চট্টগ্রামের হালিশহর এলাকার তাদের এ-ব্লকের বাসা থেকে বের হয়ে বি-ব্লকের কাছে এলে দুজন যুবক (অপহরণ চক্র) তাকে বিভিন্ন কথা জিজ্ঞাসা করতে থাকে। এ পর্যায়ে জাশেদুল বাসে উঠলে ২ যুবকও বাসে উঠে। কিছুদূর যাওয়ার পর বাস থেকে সব যাত্রী নেমে গেলে জাশেদুল নামার সময় যুবকরা তার নাকের কাছে তুলাসহ আতর ধরলে জাশেদুল জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। তার পর আর সে কিছু বলতে পারে না। 

এদিকে অপহরণ চক্র সুকৌশলে জাশেদুলকে চাঁদপুর নিয়ে আসে। চাঁদপুর এনে তাকে শহরের অজ্ঞাত স্থানে আটকিয়ে রাখে। সেখানে অপহরণ চক্র তাকে একটি ঘরে আটকিয়ে রেখে কোনো খাবার না দিয়ে দুর্বল করে ফেলে। সামান্য পানি খেতে দিত বলে জাশেদুল জানায়। 

আজ তাকে আটকিয়ে রাখা স্থানে থেকে সে বের হয়ে শহরের বিপনীবাগ আসলে বাজারের এক তরকারি ব্যবসায়ী তাকে জিজ্ঞাসা করার পর তার কথা শুনে জাশেদুলকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে দেয়। 

পুলিশের ধারণা, তাকে হয়তো শহরের বঙ্গবন্ধু সড়ক এলাকায় রাখা হয়েছিল। পুলিশ শিশু জাশেদুলকে নিয়ে বঙ্গবন্ধু সড়কসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু কোনো নির্ধারিত স্থান সে শনাক্ত করে বলতে পারেনি। 

সে বলেছে, সুন্দর-মধ্য বয়সী ২ যুবক তাকে ৫ দিন পাহারা দিয়েছে। মাদ্রাসাছাত্র জাশেদুল জানায়, তাদের বাড়ি চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ। সে চট্টগ্রাম হালিশহর থেকে, হালিশহর আল-জামিয়া ইসলামিয়া বাইতুল করিম মাদ্রাসার হেফজো বিভাগের ছাত্র হিসেবে পড়ে। সে ১১ পারা কোরআন মুখস্ত করেছে। তার বাবা সন্দ্বীযে কাঠুরিয়ার কাজ করে। তার মা প্যারালাইসিসের রোগী। তার তিন ভাই ও এক বোন রয়েছে।

এ ব্যাপারে উদ্বার করা এসআই মমিনুল ইসলাম জানান, ধারণা করা হচ্ছে, শিশুটি মাদ্রসা থেকে পালিয়ে এসেছে।

এ ব্যাপারে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওলিউল্লাহ্ অলি জানান, শিশুটি পড়াশুনার চাপে মদ্রোসা থেকে পালিয়ে এসেছে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]