logo
প্রকাশ: ০৫:২১:৪৭ PM, বুধবার, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮
ফেসবুকে গুজব ঠেকাতে সরকারের নতুন পরিকল্পনা
অনলাইন ডেস্ক

ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মাধ্যমে গুজব ছড়ানো ঠেকাতে সরকার নতুন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে বল তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। এজন্য একটি ‌‘গুজব সনাক্তকরণ ও নিরসন কেন্দ্র’ গঠন হচ্ছে। চলতি মাসের শেষের দিকে এটি গঠন করা হবে।

বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তারানা হালিম বলেন, যেকোনো গুজব অসুন্ধানে তথ্য সেল গঠন করা হবে। আট ঘণ্টা করে তিনটি শিফটে মোট ২৪ ঘণ্টা মনিটরিংয়ে রাখা হবে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। প্রতিটি শিফটে সাতজন করে কাজ করবে। কোনো গুজব পাওয়া গেলে ৩ ঘণ্টার মধ্যে এর সত্যতা সম্পর্কে গণমাধ্যমে জানানো হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম একটা গুজবের কারখানা হয়ে যায়। এই মাধ্যমের প্রতি আসক্তের কারণে একটি প্রজন্ম যাই আসুক সত্য বলে ধরে নেয়। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তথ্য মন্ত্রণালয়ের পিআইডিতে, প্রয়োজন হলে নিমকোতে বেশ কিছু তরুণ লোকবল আছে, তাদেরকে ইনক্লুড করে একটি টিম করবো, যারা ২৪ ঘণ্টা সোশ্যাল মিডিয়ায় নজরদারি করবে।

ওই টিমের কাজ হবে সোশ্যাল মিডিয়াতে যে সংবাদগুলো গুজব সেগুলো চিহ্নিত করা এবং সব সরকারি-বেসরকারি টিভি চ্যানেল, রেডিও এবং সব সংবাদ মাধ্যমে তিন ঘণ্টার মধ্যে লিখিতভাবে স্বপ্রণোদিত হয়ে পিআইডি থেকে প্রেসনোট যাবে- এই সংবাদগুলো গুজব, ভিত্তিহীন এবং অসত্য।

তারানা বলেন, বিএনপি-জামায়াতের লন্ডনভিত্তিক একটি সেল আছে এবং তিনশরও বেশি পেজ কিন্তু জামায়াতের, তারা খুব অ্যাক্টিভ এবং প্রবলভাবে স্পন্সরড তাদের পেজগুলো।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের আগেও কিন্তু এই প্রবণতাটা বেড়ে যাবে, মিথ্যা, অসত্য গুজব- এই প্রচারণা। কাজেই বাকরোধ বা কণ্ঠরোধ করা নয়, আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে কোনটি অসত্য সেটি তুলে ধরা। সে কাজ করার জন্য সেলটি গঠন করা হবে।

এ ছাড়াও তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সাফ ফুটবল সম্প্রচার করা হয়েছে। বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) এই টুর্নামেন্টের খেলা সম্প্রচার করেছে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট এখন যেকোনো সম্প্রচারের সক্ষমতা অর্জন করেছে। এ কারণে দেশের সবগুলো বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলকে এই স্যাটেলাইটের সেবা নিতে এরই মধ্যে চিঠি দেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, বিটিভি প্রতি বছর স্যাটেলাইট ফি দিত ছয় কোটি টাকা। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচারে যাওয়ায় এ টাকা এখন সাশ্রয় হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]