logo
প্রকাশ: ০২:৪৪:৫৮ PM, বৃহস্পতিবার, মে ১২, ২০১৬
এই গরমে শিশুর ত্বকে একজিমা?
অনলাইন রিপোর্ট

শিশুদের তুলতুলে নরম ত্বককে যত্নে রাখা চাই সব সময়। বেশি গরম বা শীতে অপরিষ্কার ত্বকে খুব সহজেই একজিমা বা এটোপিক ডার্মাটাইটিস হতে পারে। এই ধরণের চর্মরোগে শিশু আক্রান্ত হলে চিকিৎসায় জটিলতা বেড়ে যায়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে অবশ্য ভালো ফল পাওয়া যায় না। অনেক ক্ষেত্রে ভুল চিকিৎসার ঘটনাও ঘটে থাকে।

একজিমার লক্ষণ
শিশুদের একজিমার প্রধান উপসর্গ হলো শরীরের বিভিন্ন স্থানে চুলকানি উঠে চুলকাতে থাকে। সাধারণত একজিমা কপাল, মুখ, হাত, পা ও ত্বকের ভাঁজে প্রথমে দেখা দেয়। তবে শরীরের অন্যান্য স্থানেও এটি হতে পারে। অনেক সময় চুলকানো স্থান লাল হয়ে যায় এবং কিছুটা খসখসে হয়ে যায়। এমনকি আক্রান্ত স্থান থেকে তরল জাতীয় ফ্লুইড বের হতে পারে। শিশুদের এটোপিক ডার্মাটাইটিস ৫ বছর বয়সের মধ্যেই বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা দেয়। কিন্তু সঠিক পরিচর্যা ও চিকিৎসার মাধ্যমে এ ধরণের একজিমা অত্যন্ত ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।
গরমে ঘামাচি, সেবোরিক ডার্মাটাইটিস ও সোরিয়াসিসের সঙ্গে প্রায় একই রকম দেখা যায়। তাই সমস্যা সনাক্ত করতে ঝামেলা হয়।
এটোপিক একজিমা চিকিৎসার ক্ষেত্রে প্রথমে কতগুলো অতিসাধারণ কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। আক্রান্তের ধরন বুঝে উপযুক্ত এন্টিবায়োটিক, উপযুক্ত কোনো স্টেরয়েড ব্যবহার, চুলকানোর জন্য এন্টিহিস্টামিন খাওয়া এবং শুষ্ক ত্বকের জন্য কোনো ভালো ময়েশ্চারাইজার লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ঠিক করবেন কোন ধরণের ওষুধ শিশুর জন্য প্রয়োজন। এছাড়া নন ষ্টেরয়ডাল ক্রিমও দেয়া যায়।
সতর্কতা
মনে রাখতে হবে ক্ষারযুক্ত সাবান, গরমপানিতে গোসল, সিনথেটিক কাপড়, এলার্জিক ফুড, আক্রান্ত শিশুর রোগের তীব্রতা বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই শিশুদের একজিমা প্রতিরোধে বাবা-মায়ের দায়িত্ব সবচেয়ে বেশি। শিশুর ত্বকে যেকোনো ধরণের চুলকানি হলে প্রাথমিক অবস্থায় কোনো ডাক্তারের কাছে না গিয়ে ময়েশ্চারাইজার লোশন বা ক্রিম ব্যবহার করতে হবে। শিশুকে এলার্জিক ফুড যেমন- বেগুন, চিংড়ি মাছ, ইলিশ মাছ খাওয়া থেকে বিরত রাখতে হবে। প্রাথমিক চিকিৎসায় যদি ভালো না হয় তবে অবশ্যই কোনো চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]