logo
প্রকাশ: ০৮:৪৩:২১ PM, বৃহস্পতিবার, মার্চ ১৪, ২০১৯
তিস্তায় পানি ঢেলে প্রতিবাদ: আন্তর্জাতিক নদীকৃত্য দিবস পালিত
রংপুর ব্যুরো

১৪ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক নদীকৃত্য দিবস। 'বাঁচলে নদী, বাঁচবে জীবন’ শ্লোগান নিয়ে দিবসটি পালন করে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের রিভারাইন পিপল। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় দিবসটি উপলক্ষে মানববন্ধন, তিস্তা নদীতে পানি ঢেলে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে তারা। 

২০১৪ সাল থেকে ভারত একতরফা পানি প্রত্যাহার করার কারণে শুষ্ক মৌসুমে নদীটির অনেক স্থানে শুকিয়ে যায়। ফলে দেশের উত্তরাঞ্চলে এর নেতিবচাক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। তিস্তার পানি ভারতের একতরফা প্রত্যাহারের প্রতিবাদে সংগঠনের পক্ষে একটি প্রতীকী কর্মসূচি পালন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তারা কলসে এবং বিভিন্ন পাত্রে করে তিস্তার বুকে পানি ঢেলে পানি প্রত্যাহারের প্রতিবাদ জানান।

রিভারাইন পিপল দীর্ঘদিন ধরে ন্যায্য হিস্যার ভিত্তিতে পানির দাবিতে আন্দোলন করে আসছে। এবারে তারা প্রতীকী এই কর্মসূচির আয়োজন করে। এরপর তারা সেখানে পানির দাবিতে একটি মানববন্ধন কমসূচি পালন করে। মানববন্ধনে রিভারাইন পিপলের পরিচালক ও বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. তুহিন ওয়াদুদ, রিভারাইন পিপলের কর্মী হ্যাপী রায়, রুবেল, রেজওয়ান, সঞ্জয় চৌধুরী, কামাল আহমেদসহ অনেকেই উপস্থিত থাকবেন।

তুহিন ওয়াদুদ বলেন, ভারতের একতরফা পানি প্রত্যাহার করার কারণে শুধু বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চল ক্ষতির মধ্যে পড়েনি। সমুদ্র এলাকা পর্যন্ত এই ক্ষতির প্রভাব রয়েছে। নদীতে পানি না থাকলে সমুদ্রে উজানের পানির চাপ কম থাকে। ফলে লবণাক্ত পানি উজানের দিকে উঠে আসছে। এই নদীতে পানি না থাকার কারণে এ নদীর শাখা নদীগুলোও মরতে বসেছে। তিস্তার পানি ন্যায্য হিস্যার ভিত্তিতে পাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের মধ্য দিয়ে পানি পাওয়া না গেলে প্রয়োজনে জাতিসংঘ প্রণীত আইনের মাধ্যমে পানির ব্যবস্থা করতে হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]