logo
প্রকাশ: ০৭:২৪:৪৭ PM, শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০১৯
শ্রাবন্তী কি সত্যিই বিয়ে করে ফেললেন?
অনলাইন ডেস্ক

গলায় মালা। কপালে তিলক। দু’জনে হাসি মুখে তাকিয়ে রয়েছেন সোজা ক্যামেরার দিকে। শ্রাবন্তী এবং রোশনের ঠিক এমন একটি ছবিই ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তা হলে সত্যিই কি বিয়েটা সেরে ফেললেন নায়িকা?

যদিও এই ছবির সত্যতা যাচাই করা যায়নি। শ্রাবন্তী এবং রোশনের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট থেকেও শেয়ার হয়নি এই ছবি।

শ্রাবন্তীর পরিবার কৃষ্ণভক্ত। এ কথা টালিমহলের অনেকেই জানেন। শ্রাবন্তী নিজেও ঈশ্বরে বিশ্বাসী। এই ছবি দেখে অনেকেই মনে করছেন, হয়তো ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিয়ে করেছেন তারা। এ বিষয়ে শ্রাবন্তীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি। 

শোনা যাচ্ছে, পহেলা বৈশাখ অর্থাৎ গত সোমবার বাগদান হয়ে গিয়েছে শ্রাবন্তী-রোশনের। প্রায় এক বছর সম্পর্কে থাকার পরেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন এই জুটি।

শুক্রবারই সম্ভবত সাতপাকে বাঁধা পড়লেন এই জুটি। তবে তা কলকাতায় নয়। চণ্ডীগড়ে। রোশনের বাড়ি সেখানেই। সূত্রের খবর, সোমবার এনগেজমেন্ট হয়েছে তপসিয়ারই একটি বিলাসবহুল রেস্তরাঁয়।

পরিচালক রাজীব বিশ্বাসের সঙ্গে শ্রাবন্তীর প্রথম বিয়ে হয় ২০০৩ সালে। শোনা যায়, রাজীব নানাভাবে নির্যাতন করতেন শ্রাবন্তীকে। বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কও নাকি ছিল রাজীবের। সেই কারণেই বিচ্ছেদ। রাজীব-শ্রাবন্তীর ছেলেও রয়েছে, ঝিনুক। রাজীবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পরে শ্রাবন্তীর বিয়ে করেন পেশায় মডেল কৃষণ ব্রজকে। বিয়ের কিছু দিনের মধ্যেই শুরু হয় মনোমালিন্য। তার কারণ কেউই স্পষ্ট করে কিছু বলেননি। গত জানুয়ারিতে কৃষণের সঙ্গে বিচ্ছেদ চূড়ান্ত হয়ে যায় শ্রাবন্তীর। তার পরেই নায়িকার সঙ্গে জড়িয়ে যায় রোশনের নাম।

রোশন পেশায় একটি এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু সুপারভাইজ়ার। তার পরিবারের সঙ্গেও শ্রাবন্তীর সম্পর্ক ভাল। ছেলে ঝিনুকেরও এই বিয়েতে মত রয়েছে বলে খবর।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]