logo
প্রকাশ: ০৯:০৩:০৪ PM, শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০১৯
শিশু ওঝার অপচিকিৎসায় প্রাণ যেতে বসেছে গৃহিণীর
ভোলা প্রতিনিধি

ভোলায় এক ওঝার অপচিকিৎসায় প্রাণ যেতে বসেছে জোসনা বেগম নামের ৪৫ বছর বয়সী এক গৃহবধূর। জিন তাড়ানোর নামে গায়ে কেরোসিন মেখে ঝাড়-ফুঁকের সময় আগুন লেগে শরীরের প্রায় ৫০ ভাগ পুড়ে গেছে। অগ্নিদগ্ধ ওই গৃহবধূকে ভোলা সদর হাসপাতাল থেকে প্রথমিক চিকিৎসা শেষে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়।

ভোলা সদর থানার ওসি মো. ছগির মিঞা জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ২ অভিযুক্তকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। জড়িত অন্যদের আটকে অভিযানে চলছে।

ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের বাঘার হাওলা গ্রাম। এই গ্রামে প্রবাসী জসীমের স্ত্রী জোসনা বেগমকে গত বৃহস্পতিবার রাতে জিন তাড়ানোর নামে গায়ে কেরোসিন মেখে ঝাড়-ফুঁকের সময় আগুন ধরিয়ে দেয় শিশু ওঝা রুনা। বর্তমানে গৃহবধূ মত্যুর সাথে লড়ছে।  

আহতের মা মাহফুজা জানান, কিছুদিন ধরে তার মেয়ে জোসনা  বেগম (৪৫) অস্বাভাবিক আচরণ শুরু করে। এটাকে জিনের আছর মনে তারা পাশের গ্রামের ওঝা বেলায়েত হোসেন ও তার নাতনি শিশু ওঝা খ্যাত রুনা বেগমকে (১৩ বছর বয়সী) দেখায়।

বৃহস্পতিবার রাতে শিশু ওঝা রুনা বেগম জোসনা বেগমের গায়ে কেরোসিন মেখে আগরবাতি ও ধূপ জ্বালিয়ে ঝাড়-ফুঁকের এক পর্যায়ে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। ডাক-চিৎকারে পার্শ্ববর্তী লোকজন ছুটে এসে আগুন নিভিয়ে রাতেই জোসনা বেগমকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়। হাসপাতালে আনার আগেই তার শরীরের প্রায় ৫০ ভাগ ঝলসে যায়। সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাকে আজ দুপুরে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশ আজ বিকেলে অভিযান চালিয়ে ওঝা বেলায়েত হোসেন ও তার স্ত্রী অহিদা বেগমকে আটক করেছে। 

জোসনা বেগমের মেয়ে সাথী আক্তার জানায়, আমার মা অসুস্থ থাকায় শিশু খলিফাকে আনা হয়। উনি ঝাড়-ফুঁকের সময় আগুন লাগিয়ে দেয় আমার মায়ের শরীরে। আমরা এ ঘটনার জন্য দোষী রুনার শাস্তি দাবি করেন। তবে এ ঘটনায় শিশু ওঝা রুনা জড়িত নয় বলে দাবি করছে তার নানা-নানি। 

ভোলা সদর থানার ওসি মো. ছগির মিঞা জানিয়েছেন, সদর থানার এসআই সাহবুল জানিয়েছেন, এ ঘটনায় ২ অভিযুক্তকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। জড়িত অন্যদের আটকে অভিযানে চলছে। অগ্নিদগ্ধ জোসনার বাড়ি সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের বাঘার হাওলা গ্রামে। ৪ সন্তানের জননী জোসনার স্বামী মো. জসিম সৌদি প্রবাসী।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]