logo
প্রকাশ: ০৭:১৫:৪৬ PM, বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯
একযুগ বিনাবিচারে কারাগারে আবু হানিফা!
বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনা জেলা কারাগারে ১২ বছর যাবৎ বরগুনার পাথরঘাট উপজেলার উত্তর কাঁঠালতলী গ্রামের আবু হানিফা (৫৫) নামের এক ব্যক্তি আটক রয়েছে বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। আবু হানিফার মা আয়না বেগম (৮৫) সন্তানের জন্য পথে পথে ঘুরছে আর চোখের জল ফেলে সন্তানের মুক্তির দাবি জানাচ্ছেন।

সরেজমিনে উত্তর কাঁঠালতলী গ্রামে আবু হানিফার বাড়ি গিয়ে তার মা ও আত্মীয়স্বজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, হানিফা আয়না বেগমের মেঝো ছেলে। হানিফার প্রথম স্ত্রী নিঃসন্তান পিয়ারা বেগম ১৯৮০ সালে বিয়ের ৮ মাস পরেই গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। ওই সময় হানিফা কাজের জন্য চট্টগ্রামে অবস্থান করছিল। স্ত্রীর আত্মহত্যার দুই দিন পরে বাড়িতে আসে।

হানিফা জানায়, তার স্ত্রী মানসিকভাবে অনেকটা অসুস্থ ছিলেন। প্রায়ই রাতে কাউকে না বলে বাড়ির বাইরে চলে যেত। অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে ফিরিয়ে আনা হতো। পুলিশের হয়রানির ভয়ে সে বাড়ি থেকে চলে যায়। তাকে না পেয়ে পুলিশ সন্দেহজনকভাবে হানিফার মা আয়না বেগমকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। দীর্ঘ পাঁচ বছর কারাবাসের পরে আয়না বেগম মুক্তি পায়।

হানিফার দাবি, তাকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে বন্দী করে রাখা হয়েছে। তিনি তার মুক্তির ব্যাপারে মানবাধিকার সংগঠনে সহযোগিতা কামনা করেন। হানিফা বলেন, কী আমার অপরাধ আমি আজও জানতে পারলাম না। রাষ্ট্র কেন আমাকে আমার মত নিরাপরাধ ব্যক্তিকে আটক রেখেছে জানতে চাই।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা থানা পুলিশ বাদী হয়ে (জিআর ৪২২/৮০) ধারা ৩০২/৩৪ এ একটি মামলা দায়ের করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মজিবুর রহমান আদালতে দেয়া তার প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন, ১৯৮২ সন হতে আসামি পলাতক থাকায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানার নথিটি খুঁজিয়া পাওয়া যায়নি। জিআর রেজিস্ট্রারে ওয়ারেন্টের বিষয় উল্লেখ থাকায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ মামলায় ২৭.০১.২০০৬ ইং তারিখ পুলিশ আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা অনুসারে তাকে গ্রেফতার করে উপজেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালত পাথরঘাটায় সোপর্দ করলে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

হানিফার মা আয়না বেগম অভিযোগ করেন, তার ছেলে সম্পূর্ণ নির্দোষ। পুলিশ সঠিকভাবে তদন্ত না করে তাকে এবং তার ছেলেকে হত্যা মামলায় জড়িয়েছে। পাথরঘাটা থানা ও আদালতে ঘুরে এই মামলার কোন নথিপত্র পাওয়া যাচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন, হানিফার মা আয়না বেগম। বর্তমানে পথে পথে ভিক্ষে করে তার জীবন চলছে। তিনি প্রধানমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রীসহ সরকারের কাছে তার ছেলের মুক্তির দাবি জানান। 

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]