logo
প্রকাশ: ১২:৪৬:১৭ PM, বুধবার, মে ২২, ২০১৯
যে শহরের লক্ষাধিক নারী-পুরুষ পরকীয়ায় জড়িত!
অনলাইন ডেস্ক

তথ্য প্রযুক্তির উন্নতির ফলে মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে পরকীয়ার মতো বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কের ঘটনাও। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, ভারতের একটি শহরের প্রায় ১ লাখ ৩৫ হাজার মানুষ সক্রিয়ভাবে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িত।

জি নিউজের খবর, দীর্ঘদিন ভারতীয় দণ্ডবিধিতে, বিবাহ বহির্ভূত শারীরিক সম্পর্ককে ‘ফৌজদারি অপরাধ’ বলে ধরা হত। তবে গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট পরকীয়ার ক্ষেত্রে ভারতীয় দণ্ডবিধির ওই আইনকে ‘অসাংবিধানিক’ বলে রায় দেওয়ার পর দেশের পরকীয়-কামীদের সুপ্ত বাসনায় যেন বাঁধ ভাঙা জোয়ার এসেছে। আর এই জোয়ারে সবচেয়ে বেশি গা ভাসিয়েছে বেঙ্গালুরু! কারণ, সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী এই শহরের প্রায় ১ লক্ষ ৩৫ হাজার মানুষ সক্রিয় ভাবে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িত।

সম্প্রতি একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে জনপ্রিয় ডেটিং কমিউনিটি প্ল্যাটফর্ম ‘গ্লিডেন’ (Gleeden)। এটি মূলত ফ্রান্সের একটি ডেটিং কমিউনিটি প্ল্যাটফর্ম, যা ইদানীং ভারতেও যথেষ্ট জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ‘গ্লিডেন’ তার সমীক্ষার রিপোর্টে দাবি করেছে, এই মুহূর্তে ভারতে তাদের সক্রিয় ইউজার সংখ্যা ৫ লক্ষেরও বেশি। এই মধ্যে ১ লক্ষ ৩৫ হাজার ইউজারই বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা। এর মধ্যে রয়েছেন, ৪৩ হাজার নারী ও ৯১ হাজার ৮০০ জন পুরুষ। সংস্থার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই সংখ্যাটা ভারতের যে কোনো শহরের তুলনায় অনেকটাই বেশি।

বিশেষজ্ঞদের মতে, বেঙ্গালুরু হল ভারতের আইটি শহর। এ শহরে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অসংখ্য মানুষ কাজ করতে আসেন, বছরের পর বছর থাকেন। এদের মধ্যে অনেকেই নিজের পরিবারের থেকে দূরে, অচেনা শহরে একা থাকেন। ফলে এই একাকিত্ব কাটাতে নতুন কারও সঙ্গে বন্ধুত্ব বা সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এই সম্পর্কগুলির মধ্যে সবকটি শারীরিক সম্পর্কের দিকে না-ও গড়াতে পারে!

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]