logo
প্রকাশ: ০৭:৫৫:৩৬ PM, শনিবার, মে ২৫, ২০১৯
মাশরাফির নির্দেশে ধান কিনছে সরকার, খুশি কৃষকরা
অনলাইন ডেস্ক

সাম্প্রতিক সময়ে দেশজুড়ে কৃষকের মাঝে চলছে হাহাকার। ধানের নায্য মূল্য না পেয়ে কেউ ক্ষেতে আগুন লাগিয়ে আবার কেউ রাস্তায় ধান ছিটিয়ে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। বিষয়টি নজড়ে আসতেই নড়াইলের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আনজুমান আরাকে সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে ধান ক্রয় করার নির্দেশ দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মুর্তজা।

জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক মাশরাফির নির্দেশে নড়াইলে সরকারিভাবে ধান ক্রয় শুরু হয়েছে। ন্যায্যমূল্য পেয়ে খুশি কৃষকরা। তাদের দাবি, সরকারিভাবে ধান কেনার এ প্রক্রিয়া যেন ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকে।

জাতীয় নির্বাচনে নড়াইল-২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের ব্যানারে নির্বাচিত হয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়কও তিনি। দুই দায়িত্বই সমানভাবে দক্ষতার সঙ্গে পালন করে যাচ্ছেন ম্যাশ।

সদ্য বাংলাদেশকে প্রথমবারের মতো বহুজাতিক টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতিয়েছেন মাশরাফি। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জয়ের পরদিনই দেশে ফেরেন তিনি। ফিরেই এলাকার খোঁজখবর নেন নড়াইল এক্সপ্রেস।

মাশরাফি জানতে পারেন-ধানের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না কৃষকরা। এমনকি ধান বিক্রি করে উৎপাদন খরচও উঠছে না তাদের। সরকার ১ মণ ধান কিনছেন ১ হাজার ৪০ টাকা দরে। অথচ নড়াইলের বিভিন্ন হাটে-বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৬০০-৭০০ টাকা মূল্যে।

সার্বিক বিষয় জানার পর গেল রোববার রাতে নড়াইল জেলা প্রশাসক আনজুমান আরাকে ফোন করেন মাশরাফি। তাকে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয়ের নির্দেশ দেন তিনি। সরকারিভাবে ধান কেনার ক্ষেত্রে কৃষকরা যেন বঞ্চিত ও হয়রানির শিকার না হন, সেজন্য দরকারি ব্যবস্থা গ্রহণেরও পরামর্শ দেন সাংসদ।

এরপরই নড়াইলের কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান কিনছে সরকার। ন্যায্যমূল্য পেয়ে খুশি তারা। স্বাভাবিকভাবেই শুকরিয়া আদায় করছেন কৃষকরা। তারা বলছেন, প্রথমবারের মতো সরকারিভাবে ধান বিক্রি করতে পারছি। এ অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। তাদের দাবি, সরকারিভাবে ধান কেনার এ প্রক্রিয়া যেন ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]