logo
প্রকাশ: ১০:৫৯:১৫ AM, রবিবার, মে ২৬, ২০১৯
‘ঈদের আগেই বাবাকে ফেরত চাই’
অনলাইন ডেস্ক

২০১৩ সালের ৪ ডিসেম্বর থেকে বাবার খোঁজ জানে না শিশু লামিয়া আক্তার মীম। তখন তার বয়স ছিল মাত্র আড়াই বছর। এর মধ্যে কেটে গেছে প্রায় ছয় বছর, তবু বাবার দেখা নেই। 

শনিবার রাজধানীতে এক মানববন্ধনে মীমের আর্তি ‘আমার বাবাকে ঈদের আগেই ফেরত চাই।’ নিখোঁজ ব্যক্তিদের মায়েদের সংগঠন ‘মায়ের ডাক’-এর উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন হয়। এতে বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, মানবাধিকারকর্মী নূর খান।

মানববন্ধনে অন্তত ২০ জন নিখোঁজের স্বজন, সন্তান, স্ত্রী ও পরিবার অংশ নেয়। এতে মীমের মা মিনু আক্তার জানান, তার স্বামী কাওসার হোসেন গাড়িচালক ছিলেন। এখন কোনোভাবে টিউশনি করে সংসার চালাচ্ছেন। তিনি বলেন, ‘এ রকম আর কতদিন চলতে পারব জানি না। আমি স্বামীকে ফেরত চাই।’

আরেক শিশু আদিবা ইসলাম হৃদি পারভেজ নিখোঁজ বাবা পারভেজ হোসেনের ছবি বুকে নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নিয়েছে। সে মা ফারজানা আক্তারের সঙ্গে মানববন্ধনে এসেছে। বাবা যখন নিখোঁজ হন, তখন তার বয়স ছিল মাত্র দেড় বছর। ফারজানা আক্তার বলেন, ‘২০১৩ সালের ২ ডিসেম্বর শাহবাগ থেকে চার যুবকের সঙ্গে পারভেজ হোসেনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এখন পর্যন্ত তার খোঁজ মেলেনি। ছোট্ট হৃদি তখন কিছুই বুঝত না। এখন ধীরে ধীরে বুঝতে পারছে, সবার মতো তার বাবা নেই। ওর বাবার কী হয়েছে, কেন সে নেই, তা আমি তাকে বলতে পারছি না।’ পারভেজ বংশাল ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে মানববন্ধনে আসা নিখোঁজ সাজেদুল ইসলামের বোন আফরোজা ইসলাম বলেন, ‘সাবেক রাষ্ট্রদূত মারুফ জামান ফিরে এসেছেন। আমরাও মনে করি, আমাদের স্বজনদেরও এভাবে ফেরত দেওয়া হবে।’

২০১৩ সালে মিরপুর পল্লবী থেকে নিখোঁজ হন বিএনপিকর্মী সেলিম রেজা পিন্টু। তার বোন মুন্নীও এসেছেন মানববন্ধনে। ইউপিডিএফের অন্যতম সংগঠক ও ইউনাইটেড ওয়ার্কার্স ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাইকেল চাকমা গত ৯ এপ্রিল কাঁচপুর থেকে নিখোঁজ হন। তার বড়বোন সুভদ্র চাকমা মানববন্ধনে কথা বলার আগে অজ্ঞান হয়ে পড়েন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]