logo
প্রকাশ: ০৬:৩৫:২৩ PM, বুধবার, জুন ১২, ২০১৯
ফুলজোর নদীর কচুরিপানার মাঠ এখন ‌‌'প্রেমনগর'
এস,এম তফিজ উদ্দিন, সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার ফুলজোর নদীর বড়হর খেয়াঘাট এলাকায় কচুরিপানা জমে মাঠ ও রাস্তার সৃষ্টি হয়েছে। বিকেল হলেই চলো প্রেমনগরে যাই। এতে কচুরিপানা মাঠ এখন প্রতিদিন পরিণত হয় প্রেমনগরে। চলে প্রেমিক-প্রেমিকাদের আড্ডা ও গল্প। এ দৃশ্য না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না।

স্থানীয়রা বলছেন, উক্ত নদীর ওপর নির্মাণাধীন সেতুর পাশে পর্যাপ্ত কচুরিপানা জমে ওঠে অনেক দিন আগে। এ জমে ওঠা কচুরিপানা প্রায় ৪শ বর্গমিটার এলাকাজুড়ে পানির ওপর পুরু স্তর জমেছে। কচুরিপানার এ স্তর ক্রমাগতভাবে শক্ত হয়ে ওঠায় পারাপার হচ্ছে এলাকার মানুষ, ভ্যানগাড়ি, মোটরসাইকেলসহ অনেক ছোটখাটো যানবাহন। কয়েকদিন ধরে স্থানীয় ছেলেরা সেখানে ফুটবলও খেলছে। এতে স্থানীয় লোকজন খেয়াঘাট হয়ে নদী পারাপার প্রায় বন্ধ করে দিয়েছেন এবং সেইসাথে স্থানীয় নৌ-চলাচলও বন্ধ হয়ে গেছে। 

কচুরিপানায় জমে ওঠা এ স্থানটি এখন দর্শনীয় স্থানেও পরিণত হয়েছে। এ প্রেমনগরে দাঁড়িয়ে একে অপরের সেলফিসহ এ দৃশ্যের ছবিও তুলছেন। বিকেল হলেই জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে বিশেষ করে যুবক-যুবতীরা এ স্থানে বেড়াতে আসছে। এমনকি মোবাইলে একে অপরকে বলছেন, চলো ওই প্রেমনগরে যাই।

এ বিষয়ে বড়হর ইউপি চেয়ারম্যান আ.লীগ নেতা জহুরুল হক নান্নু জানান, ওই সেতু নির্মাণকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নদী পারাপারে একটি বাঁশের সাঁকো তৈরি করে। ভেসে আসা কচুরিপানা সাঁকোর বাঁশের খুঁটিতে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে জমে ওঠে এবং তা ক্রমাগতভাবে বড় আকারে স্তূপের সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সেখানে এখন তা মাঠ ও রাস্তার পরিণত হয়েছে। নদীর গভীরতা এখনও অনেক। এ মরণফাঁদে ঝুঁকি নিয়ে চলাচলে লোকজনকে বাধা দিলেও মানছে না তারা। স্থানীয় ছেলেরা সেখানে ফুটবলও খেলছে।

তিনি আরো বলেন, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে।

উল্লাপাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামান বলেন, ওসি দেওয়ান কৌশিক আহম্মেদ ও নিজে উপস্থিত থেকে ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থল এলাকায় সতর্কমূলক মাইকিং করা হয়েছে। নির্মাণাধীন ব্রিজ এলাকায় বাঁশের সাঁকোটি তুলে দেয়ার জন্য নির্বাহী প্রকৌশলী এলজিইডিকে বলা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]