logo
প্রকাশ: ০৭:৪১:৩২ PM, বুধবার, জুন ১২, ২০১৯
পাঁচ উইকেট নিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে ৩০৭ রানে থামালেন আমির
অনলাইন ডেস্ক

অ্যারন ফিঞ্জের ফিফটি আর ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরিতে দ্বাদশ বিশ্বকাপের ১৭তম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে বড় সংগ্রহের পথে হাঁটছিল অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু মোহাম্মদ আমিরের তোপের মুখে শেষ পর্যন্ত এক ওভার বাকি থাকতেই ৩০৭ রানে গুটিয়ে যায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। পাঁচ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী বনে গেছেন আমির।

বুধবার (১২ জুন) টনটনে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানি পেসারদের বিপক্ষে সতর্কভাবে ব্যাটিং শুরু করেন ফিঞ্চ ও ওয়ার্নার। দুজনেই তুলে নিয়েছেন ফিফটি। ফিঞ্চকে শিকার করে ১৪৬ রানে জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ আমির। মোহাম্মদ হাফিজের হাতে ধরা পড়ে বিদায়ের আগে ৮৪ বলে ৬টি চার আর ৪টি ছক্কায় ৮২ রান করেন ফিঞ্চ।

ওয়ানডাউনে নেমে সুবিধা করতে পারেননি স্টিভ স্মিথ। মাত্র ১০ রান করে মোহাম্মদ হাফিজের বলে আসিফ আলীর তালুবন্দি হয়ে ফেরেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা সাবেক এই অধিনায়ক। তবে স্বরূপে ছিলেন ওয়ার্নার। নির্বাসন কাটিয়ে ফিরে ফর্মের মগডালে আছেন তিনি। বিশ্বকাপের আগে মাতিয়ে এসেছেন আইপিএল। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টেও সেই ফর্ম ধরে রেখেছেন বিধ্বংসী ওপেনার।

পথিমধ্যে আসরে তৃতীয় ফিফটি তুলে নেন তিনি। দোর্দণ্ড প্রতাপে এগিয়ে যান সেঞ্চুরির পথে। এরই মাঝে শাহীন আফ্রিদির বলে সোজা বোল্ড হয়ে ফেরেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। তবে পথচ্যুত হননি ওয়ার্নার। শাহীন আফ্রিদিকে বাউন্ডারি মেরে তিন অংকের ম্যাজিক ফিগার স্পর্শ করেন তিনি। তুলে নেন অনবদ্য সেঞ্চুরি। বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। সব মিলিয়ে ওয়ানডে ক্যারিয়ারে বিস্ফোরক ওপেনারের ১৫তম তিন অংক ছোঁয়া ইনিংস।

অবশ্য কাঙ্ক্ষিত ঘর স্পর্শ করার পর বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি ওয়ার্নার। ব্যক্তিগত স্কোরে আর ৭ রান করেই আফ্রিদির দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন ওয়ার্নার। ফেরার আগে ১১১ বলে ১১ চার ও ১ ছক্কায় ১০৭ রানের ঝলমলে ইনিংসটি সাজান তিনি। ততক্ষণে বিশাল সংগ্রহের ভিত পেয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া।

তবে ক্যাঙ্গারুদের রানের পাহাড় গড়তে দেননি মোহাম্মাদ আমির। দীর্ঘদিন অফফর্মে থাকলেও বিশ্বকাপে দারুণ ছন্দে আছেন তিনি। ব্যাটিং স্বর্গে স্বরূপে ছিলেন তিনি। ওয়ার্নার ফেরার পর নিজের দ্বিতীয় শিকার বানিয়ে ফেরান উসমান খাজাকে। ওয়াহাব রিয়াজের তালুবন্দি করে তাকে ফেরান বাঁহাতি পেসার। সেই রেশ না কাটতেই শোয়েব মালিকের ক্যাচ বানিয়ে শন মার্শকে ফেরান তিনি।

এরপরই পথ হারায় অস্ট্রেলিয়া। কেউই দাঁড়াতে পারেননি। কোল্টার নাইলকে তুলে নিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের চেপে ধরেন রিয়াজ। তাতে প্যাট কামিন্সকে ফিরিয়ে তাতে সমর্থন জোগান হাসান। শেষ অবধি এক ওভার বাকি থাকতেই ৩০৭ রানে অলআউট হয় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা।

১০ ওভার বল করে ৩০ রান খরচায় ৫টি উইকেট শিকার করেন মোহাম্মাদ আমির। শাহিন আফ্রিদি ২টি এবং মোহাম্মদ হাফিজ, হাসান আলী ও ওয়াহাব রিয়াজ ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

গত ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হওয়ার আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয় পেয়েছিল পাকিস্তান। তবুও দলে এক পরিবর্তন এনেছে তারা। স্পিনার শাদাব খানের পরিবর্তে একাদশে ঢুকেছেন পেসার শাহিন আফ্রিদি।

আগের ম্যাচে ভারতের কাছে ম্যাচে হেরে খানিকটা ব্যাকফুটে টিম অস্ট্রেলিয়া। ইনজুরির কারণে আজকের ম্যাচে খেলতে পারছেন না অলরাউন্ডার মার্কোস স্টইনিসও। দলে তাই দুটি পরিবর্তন আনতে বাধ্য হয়েছে অসিরা। স্টইনিসের পরিবর্তে ব্যাটসম্যান শন মার্শ এবং স্পিনার অ্যাডাম জাম্পার পরিবর্তে একাদশে ডাক পেয়েছেন কেন রিচার্ডসন।

পাকিস্তানের বোলিং লাইন আপটা কতটা শক্তিশালী তার ঝলক দেখা গেছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষেই। বর্তমানে সেরা ব্যাটিং লাইনের ইংল্যান্ড ওয়াহাব রিয়াজ আর মোহাম্মদ আমিরদের কাছে পরাস্ত হয়েছেন সেই ম্যাচে। তাই অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইন আপ এই পাকিস্তানকে কীভাবে মোকাবেলা করে সেটাই দেখার অপেক্ষা।

অস্ট্রেলিয়া একাদশ: ডেভিড ওয়ার্নার, অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), উসমান খাজা, স্টিভ স্মিথ, শন মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যালেক্স ক্যারে, নাথান কুল্টার-নাইল, প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, কেন রিচার্ডসন।

পাকিস্তান একাদশ: সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক), ইমাম-উল-হক, ফখর জামান, বাবর জামান, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক, আসিফ আলী, হাসান আলী, শাহিন আফ্রিদি, ওয়াহাব রিয়াজ, মোহাম্মদ আমির।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]