logo
প্রকাশ: ০৫:৪৩:৫১ PM, শুক্রবার, জুলাই ১৯, ২০১৯
সিরাজগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত, হার্টপয়েন্টে ফাটল
সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জে সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকলেও বন্যাকবালিত এলাকার বিভিন্ন স্থানে দুর্ভোগ বাড়ছে। সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধের হার্ডপয়েন্ট এলাকায় ফাটল দেখা দিয়েছে। এতে শহরবাসীর মধ্যে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে যমুনা নদীর পানি ২ সেঃ মিটার কমে বিপদসীমার ৯৭ সেঃ মিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসও হেড কোয়ার্টার রনজিৎ কুমার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বৃহস্প্রতিবার রাত ১১টার দিকে যমুনার পানির স্রোতে হার্টপয়েন্টের উত্তর তীরে কয়েকটি ব্লক সরে যাওয়ায় এই ফাটলের সৃষ্টি হয়। রাতেই সেখানে ব্লক নিক্ষেপের কাজ চলছে। এতে আতংকের কিছু নেই। কাজিপুরে ধসে যাওয়া রিং বাঁধের স্থান দিয়ে প্রবল বেগে পানি প্রবেশ করায় ভাটি এলাকার আরো বহু গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।

যমুনা নদীর তীরবর্তী চৌহালী, শাহজাদপুর, বেলকুচি, কাজিপুর ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চরাঞ্চরসহ বন্যাকবলিত এলাকায় বিশুদ্ধ পানি, জ্বালানি ও গো-খাদ্যর চরম সংকট দেখা দিয়েছে। সেইসাথে অনেক স্থানে পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। 

জেলা বন্যা নিয়ন্ত্রণ কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, যমুনা নদীর তীরবর্তী বন্যাকবলিত এলাকায় ত্রাণসামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রয়েছে এবং বন্যাকবলিত এলাকায় মেডিক্যাল টিম কাজ করছে। বন্যাকবলিত এলাকার বহু পরিবার স্থানীয় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধসহ বিভিন্ন স্থানে আশ্রয় নিয়েছে।

এদিকে শুক্রবার দুপুরে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার, ঘাটাইল সেনানিবাসের জিওসি মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী (ডিজাইন) মোতাহার হোসেন হার্টপয়েন্ট এলাকা পরিদর্শন করেছেন। 

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected]esh.com, [email protected], [email protected]