logo
প্রকাশ: ০৮:৪১:২১ PM, সোমবার, জুলাই ২২, ২০১৯
গঙ্গাচড়া উপজেলা আ.লীগের সম্মেলন স্থগিত
রংপুর ব্যুরো

প্রায় এক দশক পর কাউন্সিলর নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে হট্টগোল সৃষ্টি হলে গঙ্গাচড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন স্থগিত ঘোষণা করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেছেন নেতারা। কাউন্সিলর লিস্টে জামায়াত-বিএনপির লোক ইস্যুতে পন্ড হয়ে গেলো ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন।

স্থানীয় নেতা আসাদুজ্জামান বাবলুর সমর্থকরা বিদায়ী আহ্বায়ক রুহুল আমীনকে এ জন্য দায়ী করে সমাবেশস্থলে হামলা করে সম্মেলন পন্ড করে দেন। এতে দুই পক্ষের ১৫ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

সোমবার সকালে গংগাচড়া উপজেলা মাঠে আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব রুহুল আমীন।

বক্তব্য রাখেন রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম, গোলাম মওলা, দপ্তর সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম টুটুল, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রোজী রহমান প্রমুখ।

সন্মেলনের প্রথম অধিবেশনের শেষে উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়। বিকেলে সন্মেলনের অধিবেশনের শুরু হলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমীন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বাবলু ও গঙ্গাচড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলামের নাম প্রস্তাব করা হয়।

সাধারণ সম্পাদক পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক সাইয়েদুল ইসলাম, আহবায়ক কমিটির সদস্য আজিজুল ইসলাম, আবুল কালাম আজাদ টিটুল, বুলবুল আহম্মেদ, আব্দুল আউয়াল পাভেল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি সজিবুর রহমান প্রামাণিক সজিবের নাম প্রস্তাব করা হয়।

বিরতির পর পুনরায় অধিবেশন শুরু হলে জেলা নেতাদের উপস্থিতিতে কাউন্সিলর নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের নেতাকর্মীদের মাঝে চরম হট্টগোল শুরু হলে জেলা নেতারা সম্মেলন স্থগিত করে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

এ ব্যাপারে রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক তৌহিদুর রহমান টুটুল ও মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রোজী রহমান জানান, কাউন্সিলর তৈরিতে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়ায় আমরা সম্মেলন স্থগিত করেছি। সচ্ছ কাউন্সিলর তৈরীর পর সন্মেলন করা হবে বলে জানান তারা।

জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম টুটুলসহ নেতৃবৃন্দ অভিযোগ স্বীকার করে বলেছেন, জামায়াত-বিএনপি-জাতীয় পার্টির লোকজন দিয়ে করা কাউন্সিলর লিস্টে প্রকৃত ত্যাগী নেতাকর্মীদের রাখা হয়নি। ফলে চরম ক্ষোভের কারণে কাউন্সিল অধিবেশন স্থগিত করা হয়েছে।

গঙ্গাচড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানিয়েছে, কমিটি গঠন নিয়ে দুই পক্ষের উত্তেজনা পুলিশি হস্তক্ষেপে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]