logo
প্রকাশ: ০৫:০৭:৪৯ PM, বুধবার, অক্টোবর ১৬, ২০১৯
‘প্যারোলের সঙ্গে দোষ স্বীকার করার কোন সম্পর্ক নেই’
অনলাইন ডেস্ক

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের কথার তীব্র সমালোচনা করেছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন।

‘যারা খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি চান তারা দালাল’- বিএনপি নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের একথার তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন, দলের ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন। তার দাবি, প্যারোল আইনগত অধিকার। না বুঝেই দলের কেউ কেউ প্যারোলের বিরোধিতা করছেন। তার মতে, আপসহীনতা মানে ধুকে ধুকে মরে যাওয়া নয়।

দুর্নীতির দায়ে সাজা মাথায় নিয়ে কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে দলের মধ্যেই চলছে নানামুখি কথা। আন্দোলন, আইনী লড়াই, সমঝোতা, প্যারোলে মুক্তি নিয়ে নানা বক্তব্য আসছে নেতাদের কাছ থেকে।

প্রথম থেকেই প্যারোলে মুক্তির কথা বলে আসছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন। যিনি খালেদা জিয়ার মামলার অন্যতম আইনজীবী।

অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ম্যাডাম খালেদা জিয়া কারাগারে তখন যদি কোন আইনজীবী তাকে গিয়ে বলে আপনি কেন প্যারোলে যাবেন কিছুদিনের মধ্যেই আপনার জামিন হয়ে যাবে। তাহলে তিনি অবশ্যই চিন্তা করবেন যেহেতু আমার জামিন হয়ে যাচ্ছে আমি কেন প্যারোলে যাবো। এতে ম্যাডামের মধ্যে একটি বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে, আইনজীবীদের মধ্যেও বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। তারা প্যারোল সম্পর্কে একটি ভুল সিদ্ধান্ত দিয়েছে। প্যারোলের সঙ্গে দোষ স্বীকার করার কোন সম্পর্ক নেই।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, যারা সমঝোতা করে প্যারোলে খালেদা জিয়ার মুক্তি চায় এমন দালাল আমাদের দলে আছে। খালেদা জিয়া কেন প্যারোলে মুক্তি পাবে, এটা হতে পার না।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের এই বক্তব্যকে খন্দকার মাহবুব বলছেন না বোঝার ফল। তিনি বলেন, প্যারোল বিষয়ে না বুঝে যারা বক্তব্য দিচ্ছে তারা এর সম্পর্কে আসলে কিছু না জেনেই দিচ্ছে। এতে আসামিদের মধ্যে একটি বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে। আমি যদি নিজেই বেঁচে না থাকি তাহলে রাজনীতি করবো কীভাবে। তখন তো আর আপোষ করার সুযোগও থাকবে না। আমরা কখনো চাই না ম্যাডামের জীবনের উপরে কোন ঝূঁকি আসুক।

আন্দোলনের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা বলার সমালোচনা করে খন্দকার মাহবুব বলেন, অনেক নেতা অনেক কিছু বলেন। কিছু নেতাদের বিরুদ্ধে তৃণমূল থেকেও অনেক ধরণের মন্তব্য শোনা যায়। এমনও শোনা যায় যে, নির্বাচনের সময় তারা মনোনয়ন বাণিজ্য করেছে। আমি দালাল হতে রাজী আছি কিন্তু আমি যে বক্তব্য দিয়েছি সেই বক্তব্যে আমি বিশ্বাসী।

খালেদা জিয়ার মামলা কেন আপিল বিভাগে নেয়া হচ্ছে না- এ প্রশ্নও তুলেন বিএনপির এই আইনজীবী।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]