logo
প্রকাশ: ০৮:১৪:১১ PM, শনিবার, অক্টোবর ১৯, ২০১৯
সৌদিতে সেই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় নিহত ১১ জনই বাংলাদেশি
অনলাইন ডেস্ক

গেল বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে সৌদি আরবে ওমরাহযাত্রী বহনকারী বাসে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৩৬ জনের ১১ জনই বাংলাদেশি বলে জানা গেছে। শনিবার জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের শ্রম কল্যাণ উইং এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

শ্রম কল্যাণ উইংয়ের প্রথম সচিব কে এম সালাহউদ্দিন স্বাক্ষরিত ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দুর্ঘটনাকবলিত গাড়িতে ১৩ জন বাংলাদেশি ছিলেন। যাদের দুইজন মদিনায় অবতরণ করেছেন, বাকি ১১ জন মক্কার যাত্রী হিসেবে বাসটিতে ছিলেন। যেহেতু আহত চারজনের মধ্যে কোনো বাংলাদেশি নেই ধারণা করা হচ্ছে ১১ জনই নিহত হয়েছেন। এরমধ্যে প্রাথমিকভাবে শুধুমাত্র ১০ জনের নাম সংগ্রহ করা গেলেও বাস কর্তৃপক্ষ ইকামা নম্বর বা অন্যান্য কোনো তথ্য দিতে পারেনি বলে জানিয়েছে রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাস।

এদিকে, মদিনার আল-মিকাত হাসপাতালে নিহতদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে জানিয়ে আরও বলা হয়, স্বজনরা যোগাযোগ করলে ওই হাসপাতালে লাশ শনাক্ত করার ব্যাপারে সহযোগিতা করবে। তবে মৃতদেহগুলো নিজ দেশে বহন উপযোগী নয় বলেও জানিয়েছেন তারা।

কর্তৃপক্ষ আরও জানায়, সার্বিক অবস্থা পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে যে ডিএনএ টেস্ট ছাড়া কোনোভাবেই মৃত ব্যক্তিদের পূর্ণাঙ্গ তথ্য পাওয়া সম্ভব না। গত বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭টার দিকে একটি গাড়ির সঙ্গে ওমরাহযাত্রী বহনকারী বাসটির ধাক্কা লাগলে এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। মদিনার ১৭০ কিলোমিটার দূরে আল-আখাল গ্রামের হিজরা রোডে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে আরব নিউজ।

স্থানীয় পুলিশের বরাতে খবরে বলা হয়েছে, এশিয়ান ও আরব দেশের নাগরিকদের বহনকারী বাসটিতে ৩৯ জন যাত্রী ছিলেন। বেসরকারি পরিবহনের বাসটি একটি ভারী যানবাহনের সঙ্গে ধাক্কা খায়। এতে সঙ্গে সঙ্গে বাসটিতে আগুন ধরে যায় এবং ঘটনাস্থলেই ৩৬ জন নিহত হয়।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]