logo
প্রকাশ: ০২:০৮:০৪ PM, মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯
কম টাকা দেওয়ায় বাবাকে পিটিয়ে হত্যা করলেন ছেলে
অনলাইন ডেস্ক

ছেলের চাহিদানুযায়ী টাকা দেননি বাবা, এ নিয়ে গভীর রাতে দু’জনের মধ্যে তুমুল ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে ছেলে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘরে থাকা রড দিয়ে বাবাকে পেটান। এতে গুরুতর আহত হয়ে মারা যান স্কুল শিক্ষক বাবা।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার গোসিঙ্গা ইউনিয়নের লতিফপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।  এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছেলে ইমরান হাশমি রাতুলকে (২৬) আটক করে শ্রীপুর থানা পুলিশ। তিনি রাজধানী উত্তরার ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। 

নিহত ব্যক্তির নাম আব্দুল ওয়াদুদ ওরফে বাবুল মাস্টার (৫৫)।  তিনি গাজীপুরের কাপাসিয়ার উপজেলার তরগাঁও কোহিনুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক ছিলেন।

শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান জানান, নিজ বাড়িতে রাতে বাবুল মাস্টার ও ছেলে রাতুলের মধ্যে টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে ছেলে রাতুল ঘরে থাকা রড দিয়ে তার বাবাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেন। পরে ছেলে নিজেই জাতীয় জরুরি সেবা ‘৯৯৯’ ফোন দিয়ে পুলিশকে ঘটনাটি জানায়। 

এরপর পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বাবুল মাস্টারকে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত তিনটার দিকে তার মৃত্যু হয়। একই সঙ্গে রাতুলকে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য খোরশীদ আলম (রফিক প্রধান) বলেন, ‘রাতুল অত্যন্ত মেধাবী ছাত্র। সে প্রায়ই টাকার জন্য বাবার সঙ্গে ঝগড়া করতো। প্রতি মাসে রাতুলের চাহিদা মোতাবেক টাকা দিলেও অতিরিক্ত টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে এ ঘটনা ঘটে।’

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) লিয়াকত আলী জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]