logo
প্রকাশ: ১১:০৭:৩৩ AM, শনিবার, জুন ৪, ২০১৬
ফ্রিজে ‘মায়ের অঙ্গ’!
অনলাইন ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনার গোল্ডসবরো এলাকার প্রতিবেশী এক নারীর কাছে থেকে মাত্র ৩০ ডলারে একটি পুরাতন ফ্রিজ কেনেন। কিন্তু বিক্রেতা তাকে একটি অজুহাত দিয়ে ফ্রিজটি খুলতে নিষেধ করেন এবং বলেন, ফ্রিজের ভেতরে গির্জার একটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস রয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ সময়ে গির্জা থেকে জিনিসিটি নিতে কেউ না আসার শেষ পর্যন্ত ফ্রিজটি খুলে তাজ্জব বনে যান তিনি!এ কী এতো মানুষের দেহাবশেষ!দ্রুত সে ফিরে এসে দেখতে পান বিক্রেতা শহর ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছে।
মার্কিন ওই নারী বলেন, গির্জা থেকে কেউ আসার কথা ছিল এবং ফ্রিজের ভেতরে থাকা জিনিসটি নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তারা আসেনি। আমি একবার ভেবেছিলাম ফ্রিজটি ফেরত দিয়ে দিব। পরে ফ্রিজটি খোলার সিদ্ধান্ত নেই।
ফ্রিজটি খোলার পর তিনি যা দেখলেন তা বিশ্বাস করতে পারলেন না। মার্কিন ওই নারী তখন জরুরি সার্ভিসকে খবর দেন।
জরুরি নম্বরে ফোন রেকর্ডে ওই নারীকে বলতে শোনা যায়, আমি মারাত্মক সমস্যায় পড়েছি। আমার প্রতিবেশী একটি ফ্রিজ আমার কাছে বিক্রি করেছিল। ফ্রিজটি খোলার পর মানুষের অঙ্গ দেখে মারাত্মক ভয় পাচ্ছি।
মার্কিন ওই নারী ধারণা করছেন, শরীরের অংশটি ফ্রিজ বিক্রেতা ওই নারীর মায়ের। তিনি তার মায়ের সঙ্গে থাকত। কিন্তু গত সেপ্টেম্বর থেকে মাকে দেখা যায়নি। ওই নারী তাকে বলেছিল, তিনি শহর ছেড়ে তার মায়ের সঙ্গে পশ্চিম ভার্জিনিয়া চলে যাচ্ছেন।  
গতকাল বুধবার নর্থ ক্যারোলিনা মেডিকেল পরীক্ষা অফিস দেহাবশেষ শনাক্ত করেছেন। এই পর্যায়ে তারা সন্দেহজনক কোনো কিছু পাননি।
গোল্ডসবরো পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত করছেন। একজন মৃত ব্যক্তির তথ্য গোপন করা যুক্তরাষ্ট্রের আইনে গুরুতর অপরাধ বলে পুলিশ জানায়। সূত্র: দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট।   

 

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]