logo
প্রকাশ: ০৮:২৮:৫২ PM, রবিবার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০২০
‘পাপিয়ার সাথে আমার কোনো ব্যবসা নেই’
অনলাইন ডেস্ক

বহিষ্কৃত যুব মহিলা লীগ নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়াকে নিয়ে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন যুব মহিলা লীগের আরেক নেত্রী ও সংরক্ষিত নারী আসনের সাবেক এমপি সাবিনা আক্তার তুহিন।

অবৈধ অস্ত্র, মাদক, সুন্দরী নারীদের দিয়ে অনৈতিক কাজ করানো এবং চাঁদাবাজিসহ নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ডে বহিষ্কার ও গ্রেপ্তার হওয়া নরসিংদী জেলা যুবমহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামিমা নূর পাপিয়াকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন ঢাকা মহানগর উত্তর যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও সংরক্ষিত নারী আসনের সাবেক সংসদ সদস্য সাবিনা আক্তার তুহিন।

সাবিনা আক্তার তুহিনের ফেইসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হল- ''পাপিয়া নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক, তাই যুব মহিলা লীগের পিকনিকে অপুদির সাথে গেলে তাকে আমি চিনেছি। আমি যেহেতু কর্মী বান্ধব কর্মী, তাই সব জেলার বা মহানগরের মেয়েদের সাথে আমি ভালো ব্যবহার করি।আমার সাথে পাপিয়ার একবছর যাবত দেখা হয় না। আমি ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি, জেলা কমিটি দেয়ার এখতিয়ার আমি রাখি না, যারা তাকে নেতৃত্বে এনেছে তারা তার ব্যপারে জবাবদিহি করবে।

আমি তীব্র নিন্দা জানাই আমার বিরুদ্ধে যারা উদ্দশ্য প্রণোদিতভাবে মিথ্যা অপপ্রচারে লিপ্ত হয়েছে, আমি চ্যলেঞ্জ দিয়ে বলছি পাপিয়ার সাথে আমার কোনো গাড়ীর ব্যবসা বা অন্য কোনো ব্যবসা নেই। এসব, আগামীতে যুব মহিলা লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত। আমার স্বামী একজন ক্লীন ইমেজের ব্যবসায়ী। যারা এগুলি করাচ্ছে সে নেত্রীদের পরিবার কে কি ব্যবসা করে সে ফাইল তলব করা হোক। আমি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে অনুরোধ করবো রিমানডে নিয়ে বের করা হোক পাপিয়া বা তার স্বামীর সাথে কে কে জড়িত। কেউ মানুষের ভেতরে প্রবেশ করতে পারে না, তাই সে যেহেতু জেলার সাধারণ সম্পাদক আর সে যেহেতু ঢাকায় থাকতো তাই পিকনিকে অপুদির মাধ্যমে দেখা হলে সে নিজে থেকে আমার বিভিন্ন কর্মসূচীতে আসতো। আমি কি জানি, সে ভালো, না মন্দ। সব জেলার মেয়েরা এলেই আমি ভালো ব্যবহার করি। আমি পাপিয়াকে অল্প সময় চিনতাম ,যারা ফেসবুকে আছে তারা দেখছে তার সাথে একবছর যাবত আমার সাক্ষাত ও নেই। আমি প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই তার সাথে আমার কেবলমাত্র সাংগঠনিক সম্পর্ক ছিলো যার দায়-দায়িত্ব সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের।

আমি যদি তার সাথে তার ব্যক্তিগত কোনো কর্মে থাকি তবেই কেবল আমার দায়িত্ব। আমি দুবাই আওয়ামী লীগের নিমন্ত্রণে ২১শে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষ্যে অনুষ্ঠানে থাকা অবস্থায় এই চক্রান্ত করা হয়েছে। যাই হোক কেউ অপরাধী হলে তাকে সাজা দেয়া হোক আর তাদের পিছনে কে কে আছে তাও বের করা হোক ,আশাকরি সত্য বের করে সকল অপরাধীর সাজা নিশ্চিত করা হবে।''

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]