logo
প্রকাশ: ১১:১৮:৩৮ AM, বৃহস্পতিবার, জুন ৩০, ২০১৬
মেহেদী লাগান সঠিক নিয়মে
অনলাইন রিপোর্ট

আর কিছু দিন পরেই ঈদ। তাই অনেকেই পরিকল্পনা করে রেখেছেন হাত-পায়ে বা শরীরের বিভিন্ন অংশে মেহেদি দেবেন। এ জন্য বাজার ঘুরে সবচেয়ে ভাল মেহেদিটা কেনা হল। কিন্তু একদিন যেতে না যেতেই সেই মেহেদির রং ফিকে যায়!

কিন্তু জানেন কি, মেহেদির রং ফিকে হওয়ার জন্য অনেকাংশে আমরা নিজেরাই দায়ী! খুব অবাক হচ্ছেন? মেহেদির দেওয়ার পর আমরা এমন কিছু কাজ করে ফেলি যার জন্য মেহেদির রং ফিকে হয়ে যায়।
জেনে নেই এমন কিছু কাজ যা মেহেদির দেওয়ার সময় কখনোই করা যাবে না।
১। মেহেদি দেওয়ার পর অনেকে সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে থাকেন যা কখনোই করবেন না। সাবানের ক্ষারীয় উপাদান মেহেদির রং কে ফিকে করে দেয়।
২। মেহেদি দেওয়ার কিছুক্ষণ পরই হাত ধুয়ে ফেলবেন না। কমপক্ষে ৬ ঘণ্টা মেহেদি হাতে রাখার চেষ্টা করুন। সম্ভব হলে রাতে মেহেদি দিয়ে পরের দিন সকালে তা তুলে ফেলুন। গোসলের কাজটা মেহেদি দেওয়ার পূর্বে শেষ করে ফেলুন। মনে রাখবেন মেহেদি যত বেশি সময় হাতে রাখবেন তত বেশি গাঢ় রং হবে।
৩। চিনি, লেবুরপানি মেহেদির রংকে গাঢ় করে থাকে। কিন্তু খুব বেশি ব্যবহারে মেহেদি খয়েরি রং হয়ে যায়। যা দেখতে একদমই ভাল না।
৪। মেহেদি শুকানোর জন্য কখনই হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করবেন না। এতে আপনার ডিজাইন নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। প্রাকৃতিকভাবে মেহেদি শুকাতে দিন। প্রয়োজন হলে ফ্যান ব্যবহার করতে পারেন মেহেদি শুকানোর জন্য।
৫। মেহেদি দেওয়ার আগে খুব বেশি পানি বা পানি জাতীয় খাবার খাবেন না।
৬। হালকা বা আবছা আলোর মধ্যে মেহেদি দিবেন না। ভাল মেহেদি ডিজাইনের জন্য পর্যাপ্ত আলোর প্রয়োজন।
৭। লেবুতে যাদের এলার্জি তারা অনেক সময় সরিষার তেল ব্যবহার করে থাকেন মেহেদি রং গাঢ় করার জন্য । তেল ব্যবহারে হাতের শুষ্কতা অনেকটাই কমে যায়। তবে তেল ব্যবহারের আগে এর মান সম্পর্কে নিশ্চত হয়ে নেবেন।
৮। অনেকে মেহেদি তেল ব্যবহার করেন। মেহেদি তেল কেনার পূর্বে এর মেয়াদ এবং তৈরির উপাদান দেখে নিবেন। এটি মেহেদি লাগানোরে আগে ব্যবহার করতে হয়। কখনোই মেহেদির লাগানোর পর এই তেল ব্যবহার করবেন না।

 

সম্পাদক ও প্রকাশক : কাজী রফিকুল আলম । সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক আলোকিত মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫ থেকে প্রকাশিত এবং প্রাইম আর্ট প্রেস ৭০ নয়াপল্টন ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত। বার্তা, সম্পাদকীয় ও বাণিজ্যিক বিভাগ : ১৫১/৭, গ্রীন রোড (৪র্থ-৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২০৫। ফোন : ৯১১০৫৭২, ৯১১০৭০১, ৯১১০৮৫৩, ৯১২৩৭০৩, মোবাইল : ০১৭৭৮৯৪৫৯৪৩, ফ্যাক্স : ৯১২১৭৩০, E-mail : [email protected], [email protected], [email protected]