আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১-১২-২০১৬ তারিখে পত্রিকা

চুয়াডাঙ্গা জেলা স্টেডিয়াম

উদ্বোধনের অপেক্ষায় ৩ বছর পার

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা
| দেশ

নির্মাণের ৩ বছর পেরিয়ে গেলেও এখনও উদ্বোধন হয়নি আন্তর্জাতিক মানের চুয়াডাঙ্গা জেলা স্টেডিয়াম। দীর্ঘ এ অপেক্ষমাণ সময়ে শুধু উদ্বোধনের অপেক্ষা করতে গিয়ে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে খেলোয়াড়দের। এদিকে গত কয়েক বছর ধরে স্টেডিয়ামটি ব্যবহার না হওয়ায় নষ্ট হয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন অবকাঠামো। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্থাপনাটি উদ্বোধন করার কথা থাকায় এত বেশি বিলম্ব হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১২ সালের প্রথম দিকে নির্মাণ কাজ শুরু করা হয় চুয়াডাঙ্গা জেলা স্টেডিয়ামের। প্রায় সাড়ে ১৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ১২ দশমিক ৩৬ একর জমির ওপর নির্মিত জেলা স্টেডিয়ামের কাজ ২০১৩ সালের ২৭ আগস্ট শেষ হয়। আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন স্টেডিয়ামটি নির্মাণের ৩ বছর পেরিয়ে গেছে এরই মধ্যে। কিন্তু উদ্বোধন না হওয়ায় খেলোয়াড়রা স্টেডিয়ামটি ব্যবহার করতে পারছেন না। গত কয়েক বছর আগে নির্মাণ কাজ শেষ হলেও পরিচর্যার অভাবে এরই মধ্যে অবকাঠামোগুলো নষ্ট হতে যাচ্ছে। অথচ মাঠের অভাবে তারা ঠিকমতো খেলাধুলা করতে পারছেন না। জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার মাহমুদুল হক লিটন জানান, নতুন স্টেডিয়ামটির দ্বার উন্মুক্ত না হওয়ার কারণে স্থবিরতা কাটছে না চুয়াডাঙ্গার ক্রীড়া অঙ্গনে। তাদের ম্যাচ অনুশীলনের উপযুক্ত কোনো স্থান এ শহরে নেই। চুয়াডাঙ্গা শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সাধারণ সম্পাদক রাসেল মাহমুদ বলেন, খেলোয়াড়দের জন্য তৈরি করা মাঠ অযতেœ অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে। অথচ আমরা অনুশীলনের জন্য মাঠ পাচ্ছি না। একজন খেলোয়াড় হিসাবে এর চেয়ে কষ্টের আর কি হতে পারে! চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নঈম হাসান জোয়ার্দ্দার বলেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে স্টেডিয়মাটি এখনও উদ্বোধনের মুখ দেখেনি। তবে খুব শিগগিরই সব সংকট কাটিয়ে নতুন স্টেডিয়াম উদ্বোধন করে জেলার ক্রীড়া অঙ্গনকে আরও গতিশীল করা হবে।