আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১২-০১-২০১৭ তারিখে পত্রিকা

সাকিব-তামিমদের পাকিস্তানে যেতে মানা!

পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) এবারের আসরের সব ম্যাচ আরব আমিরাতে হলেও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) ফাইনালটি লাহোরে করার ঘোষণা দিয়েছে। এতে ক্রিকেটারদের বিশ্ব সংগঠন ফেডারেশন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশন (ফিকা) সতর্ক বার্তা উচ্চারণ করেছে। নিরাপত্তাহীনতার কথা বলে তারা সব বিদেশি ক্রিকেটারকে পাকিস্তানে যেতে নিষেধ করেছে। আর তাতেই ক্ষেপেছে পিসিবি। এ আসরে বাংলাদেশের দুই তারকা সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবাল এবার পেশোয়ার জালমির সঙ্গে। এক অর্থে তাদের সংগঠন, পাকিস্তানে যেতে তাদের মানাই করছে।
২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে কোনো দলই আর পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে যায় না। আমিরাত এখন তাদের হোম ভেন্যু। গেল বছর শুরু ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আসর পিএসএল অনুষ্ঠিত হয়েছে আমিরাতে। কিন্তু এবার এ আসরের ফাইনাল লাহোরে করতে চাইছে পিসিবি। কিন্তু বিদেশি খেলোয়াড়রা যেহেতু এমন টি-টোয়েন্টি আসরের প্রধান আকর্ষণÑ তাই শঙ্কাটা থাকছে। 
ক্রিকেটারদের উদ্দেশে ফিকার বার্তা ‘খেলাধুলার ইভেন্টে হামলার শঙ্কা ওখানে আছে। পাকিস্তানের সন্ত্রাসীরা দেশটির যে কোনো জায়গায় হামলা করার মতো অবস্থায় থাকে। তাই ওখানে সফর করার আগে বারবার ভাবা দরকার। ওখানে বিদেশি ক্রিকেটারদের না যাওয়াটাই নিরাপদ।’
এদিকে পিসিবি আশাবাদী যে মার্চের ফাইনাল খেলতে তাদের দেশে বিভিন্ন দেশের ক্রিকেটাররা যাবেন। তারা বিস্তারিত বলেনি। তবে এটা বলেছেÑ তারা এ নিশ্চয়তা পেয়েছে যে অনেক বিদেশি খেলোয়াড়ই পিএসএলের ফাইনাল খেলতে পাকিস্তানে যেতে রাজি আছেনÑ টুর্নামেন্টের দলগুলো সেটা নিশ্চিত করেছে।
তাই ফিকার সমালোচনা করে তারা বলেছে, ‘সব ধরনের ক্রিকেট ও পাকিস্তানের ক্রিকেটের জন্য বিশেষ ভালো কিছু বলেনি ফিকা। পিএসএলের ফাইনালে খেলতে যেতে নিষেধ করেছে তারা। ফিকা জানায়নি কোন নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ তাদের এ খবর দিয়েছেন, পাকিস্তান চূড়ান্ত নিরাপত্তাহীনতায় আছে।’
পিসিবি জানিয়েছে, পিএসএলের ফাইনালে তারা খেলোয়াড়দের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেয়ার নিশ্চয়তা দেশটির সরকারের কাছ থেকেই পেয়েছে। লাহোরের ফাইনালে ৩ হাজারের বেশি সেনা ও পুলিশ মোতায়েন করা হবে। ভিভিআইপি নিরাপত্তা দিয়ে দল ও খেলোয়াড়দের সফরের ব্যবস্থা করবে। তার মানে, যাই হোক না কেনÑ পাকিস্তানে এবারের পিএসএলের ফাইনাল করেই ছাড়বে পিসিবি।


খবরটি পঠিত হয়েছে ৮৪০ বার