আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৬-০২-২০১৭ তারিখে পত্রিকা

ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষে অধিক লাভ

নূরে-আলম রনী, পলাশ
| সুসংবাদ প্রতিদিন

লাভজনক হওয়ায় নরসিংদীতে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ। মেঘনার শাখা ও পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদসহ বিভিন্ন বিলের পানিতে এ পদ্ধতিতে মাছ চাষ করছেন চাষিরা। এতে একদিকে যেমন উৎপাদিত হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের সুস্বাদু মাছ, পাশাপাশি কর্মসংস্থান সৃষ্টি হয়েছে অনেকের। তুলনামূলক খরচ কম ও লাভ বেশি হওয়ায় এ পদ্ধতিতে তেলাপিয়া, পাবদা, পাঙাশ, রুইসহ বিভিন্ন ধরনের মাছ চাষ করা যায়। জেলা মৎস্য বিভাগ ও মাছ চাষিদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নরসিংদী জেলাজুড়ে নদীর পানিতে ভাসমান খাঁচায় মাছ চাষ করে সফলতা অর্জন করেছেন মাছ চাষিরা। নদীর পানিতে লোহার পাইপ, বাঁশ, ড্রাম ও চারদিকে জাল দিয়ে তৈরি করা হয় এ ভাসমান খাঁচা। নরসিংদীর মেঘনার শাখা নদী ও পুরনো ব্রহ্মপুত্র নদসহ বিভিন্ন বিলের পানিতে এ পদ্ধতিতে মাছ চাষ করছেন চাষিরা। নরসিংদী জেলা মৎস্য বিভাগের হিসাব অনুযায়ী জেলায় সাড়ে ৮০০ খাঁচায় মাছ চাষ করা হয়। মৎস্য চাষিদের দেয়া তথ্য মতে, এ সংখ্যা দেড় সহস্রাধিক। তুলনামূলক খরচ কম ও লাভ বেশি হওয়ায় এ পদ্ধতিতে তেলাপিয়া, পাবদা, পাঙাশ, রুইসহ বিভিন্ন ধরনের মাছ চাষ করা যায়। পুকুরে চাষ করা মাছের চেয়ে স্বাদ ভালো হওয়ায় এ পদ্ধতিতে চাষ করা মাছের চাহিদা রয়েছে বাজারে। সরাসরি খাঁচা থেকেই এসব মাছ কিনে নিয়ে যান পাইকাররা। এ পদ্ধতিতে প্রবহমান পানিতে মাছ চাষের ফলে জলাশয়ের সঠিক ব্যবহার সুনিশ্চিত হচ্ছে।