আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৭-০৩-২০১৭ তারিখে পত্রিকা

পাপনের আগ্রহে মিরাজ

স্পোর্টস রিপোর্টার
| খেলা

টেস্টের মতো না হলেও ওয়ানডে অভিষেকটাও বেশ ভালো হয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজের। অথচ ওয়ানডে স্কোয়াডেই তিনি ছিলেন না। মিরাজের আকস্মিক দলভুক্তির পেছনে মূল কারিগর হিসেবে কাজ করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। কলম্বো টেস্ট খেলে ২০ মার্চ ওয়ানডে স্কোয়াডে না থাকা খেলোয়াড়দের সঙ্গে ঢাকায় ফিরে এসেছিলেন মিরাজ। দেশে ফিরে ছুটি কাটাতে খুলনায় গ্রামের বাড়িতেও চলে গিয়েছিলেন তিনি। তার খেলার কথা ছিল ইমার্জিং এশিয়া কাপে। কিন্তু দেশে ফেরার তিন দিন পর হঠাৎ করেই মিরাজকে ১৭তম খেলোয়াড় হিসেবে ওয়ানডে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।
দিন দশেক আগে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, মাহমুদউল্লাহকে কলম্বো টেস্ট থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত ছিল তার। এবার তিনি জানালেন, মিরাজকেও ওয়ানডে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে তার কথায়। শ্রীলঙ্কায় থাকা বিসিবি সংবাদ কর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুকে ফোন করে মিরাজকে শ্রীলঙ্কায় পাঠাতে বলেছিলেন তিনিই। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আমি নান্নুকে ফোন করে বললাম, মিরাজকে শ্রীলঙ্কায় পাঠাও। আমি ওকে (মিরাজ) ফোন করে জানলাম, ও খুলনায়। ওকে বললাম, এখনই চলে এসো। শ্রীলঙ্কায় যেতে হবে। আসলে লঙ্কান দলে মানসম্পন্ন বেশ কয়েকজন বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান থাকায় আমরা মিরাজকে নিয়েছি। টেস্টে ও দারুণ বোলিং করেছে। আর সিরিজটাও আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।’
ডাম্বুলায় ওয়ানডে অভিষেকে বেশ ভালোই করেছেন মিরাজ। ব্যাটিংয়ের সুযোগ পাননি। তবে বোলিংয়ে ১০ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নিয়েছেন ২ উইকেট। দুইটি উইকেটই ছিল বেশ মূল্যবান। তার শিকার কুশল মেন্ডিস ও শ্রীলঙ্কার ইনিংসে সর্বোচ্চ রান (৫৯) করা দিনেশ চান্দিমাল। অভিষেক ওয়ানডেতে বল হাতে ওপেনও করেছেন। ওয়ানডে ইতিহাসে অভিষেকে বল ওপেন করা মাত্র ষষ্ঠ স্পিনার তিনি। তবে মিরাজকে একাদশে নেয়ার সিদ্ধান্তটা তার ছিল না বলে জানাতে ভোলেননি বিসিবি সভাপতি, ‘ম্যাচের দিন সকালে যখন আমি দলের সঙ্গে বসলাম, তখনও ঠিক হয়নি কে খেলবেÑ মিরাজ নাকি সানজামুল। এটা চূড়ান্ত হয়েছে দল মাঠে আসার পর।’