আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২৭-০৩-২০১৭ তারিখে পত্রিকা

সারা দেশে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা

আলোকিত ডেস্ক
| দেশ

সারা দেশে রোববার যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-১৭ পালিত হয়েছে। সূর্যোদয়ের সঙ্গে ৩১ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসের সূচনা করা হয়। দিবসটি পালন উপলক্ষে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ, বধ্যভূমি ও গণকবর, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করে জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, জেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা আওয়ামী লীগ, নড়াইল পৌরসভাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা। পরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়। এতে জেলাপর্যায়ের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ পুলিশ বিভাগ, আনসার বাহিনী, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে। অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা দেয়া হয়। প্রতিনধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো খবর
মুন্সীগঞ্জ : ইউএনও সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃনাল কান্তি দাস, উপজেলা চেয়ারম্যান রেফায়েত উল্লাহ খান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফরিদা ইয়াছমিন প্রমুখ।
মেহেরপুর : জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ, পুলিশের পক্ষ থেকে আনিছুর রহমান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বশির আহম্মেদ, পৌর মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে এমপি অধ্যাপক ফরহাদ হোসেনের নেতৃত্বে একটি মিছিল সেখানে উপস্থিত হয়ে শহীদ স্মৃতিসৌধে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন।
নড়াইল : অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক হেলাল মাহমুদ শরীফ, পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুবাস চন্দ্র বোস, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার গোলাম কবীর, পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
রংপুর : স্বাধীনতা দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. নাজমুল হকের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবী, বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নাজমুল হক, শিক্ষক সমিতির সভাপতি ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান প্রমুখ।
সাতক্ষীরা : জেলা প্রশাসক আবুল কাসেম মোঃ মহিউদ্দীন ও পুলিশ সুপার আলতাফ হোসেন সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। পরে পুলিশ, বিএনসিসি ও বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের সমম্বয়ে দৃষ্টিনন্দন মার্চপাস্ট, শরীরচর্চা প্রদর্শনী ও ডিসপ্লে অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সেখানে সালাম গ্রহণ করেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপি, মীর মোস্তাক আহমেদ রবি এমপি, অ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি প্রমুখ।
টাঙ্গাইল : কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক মাহবুব হোসেন ও পুলিশ সুপার মাহবুব আলম।
রূপগঞ্জ : সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতীক), ইউএনও ফারহানা ইসলাম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূইয়া প্রমুখ শহীদ বেদিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।
পলাশ : ইউএনও মাহমুদা আক্তারের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান সৈয়দ জাবেদ হোসেন, সহকারী কমিশনার অমিত দেবনাথ, পৌর মেয়র শরিফুল হক শরিফ প্রমুখ।
নকলা : পতাকা উত্তোলন এবং শান্তির পায়রা অবমুক্ত করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুব আলী চৌধুরী, ইউএনও রাজিব কুমার সরকার, নকলা থানার ওসি খান আবদুল হালিম সিদ্দিকী। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আবুল মনছুর প্রমুখ।
মির্জাপুর : শান্তির প্রতীক কবুতর উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মীর এনায়েত হোসেন মন্টু। এ সময় ইউএনও ইসরাত সাদমীন, পৌর মেয়র সাহাদত হোসেন সুমন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মাগুরা : অনুষ্ঠানে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আহসান উল্লাহ শরিফীর সভাপতিত্বে উপজেলা চেয়ারম্যান বদরুল আলম হিরো, ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস সুলতানা, ওসি রেজাউল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ইকরাম আলী বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
লক্ষ্মীপুর : মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিফলকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন সংসদ সদস্য এ কে এম শাহজাহান কামাল, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শামছুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক জিল্লুর রহমান চৌধুরী, পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন প্রমুখ।
কুড়িগ্রাম : স্বাধীনতার বিজয়স্তম্ভে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা, জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা জাতীয় পার্টি, জেলা বিএনপি ও প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন।
দিনাজপুর : স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান এমপি, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, জেলা প্রশাসক মীর খায়রুল আলম ও পুলিশ সুপার মোঃ হামিদুল আলম।
কাপাসিয়া : পুলিশ প্রশাসন, আনসার ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন সংসদ সদস্য বঙ্গতাজ কন্যা সিমিন হোসেন রিমি, উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার আজিজুর রহমান পেরা, ইউএনও মাকছুদুল ইসলাম, ওনিস আবুবকর সিদ্দিক প্রমুখ।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ : মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও এমপি আবদুল ওদুদ, জেলা প্রশাসক মাহমুদুল হাসান, পুলিশ সুপার টি এম মোজাহিদুল ইসলামসহ সর্বস্তরের মানুষ।
ভোলা : পায়রা, বেলুন ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে দিবসের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক সেলিম উদ্দিন।
বাকৃবি : বাকৃবি ভিসি প্রফেসর ড. মোঃ আলী আকবর মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ মরণ সাগরে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করেন। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোভিসি অধ্যাপক ড. মোঃ জসিমউদ্দিন খান, ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, সাংস্কৃতিক-রাজনৈতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।
পাবনা : পাবনা জেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, পাবনা জেলা পরিষদ, পুলিশ প্রশাসন, জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা প্রেসক্লাব, পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটি, সরকারি অ্যাডওয়ার্ড কলেজ, পাবনা মেডিকেল কলেজ, স্বাধীনতা দিবস উযাপন পরিষদ ব্যাপক কর্মসূচি পালন করেছে।
কেশবপুর : ইউএনও শরীফ রায়হান কবিরের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক এমপি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এইচ এম আমির হোসেন, পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান নাসিমা সাদেক, ওসি সহিদুল ইসলাম সহিদ, মুক্তিযোদ্ধা কাজী রফিকুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনিসুর রহমান খান প্রমুখ।
বেনাপোল : মেজর নজরুল ইসলামের নেতৃত্বে ৪৯ বিজিবি সদস্যরা স্মৃতিসৌধে কুচকাওয়াজ ও গার্ড অব অনার প্রদর্শন করেন। এ সময় প্রশাসনের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
বাজিতপুর : সভায় বক্তব্য রাখেন পৌর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক মেয়র এহেসান কুফিয়া, বিএনপি নেতা জসিম মাহমুদ জসিম, উপজেলা যুবদল সভাপতি কাইসার মাহমুদ রিপন প্রমুখ।
আড়াইহাজার : অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় এমপি নজরুল ইসলাম বাবু, উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ্জালাল মিয়া, ইউএনও সুরাইয়া খান, আবু তালেব মোল্লা, আলী হোসেন, সুন্দর আলী প্রমুখ।
ইসলামপুর : কুচকাওয়াজে অভিবাদন গ্রহণ করেন ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান নবী নেওয়াজ খান লোহানী বিপুল, ইউএনও এ বি এম এহছানুল মামুন প্রমুখ।
রাজৈর : ইউএনও মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান খান, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সেকান্দার আলী শেখ, মুক্তিযোদ্ধা কাদের মোল্লা প্রমুখ।
নাটোর : সকালে শংকর গোবিন্দ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আনুষ্ঠানিক কুচকাওয়াজে সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক শাহিনা খাতুন। বেলা ১১টায় কানাইখালী মাঠে মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সংবর্ধনা দেয়া হয়।
ময়মনসিংহ : স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ধর্মমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, বিভাগীয় কমিশনার জি এম সালেহ উদ্দিন, রেঞ্জ ডিআইজি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন, জেলা প্রশাসক খলিলুর রহমান প্রমুখ।
গোপালগঞ্জ : টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেলা প্রাশাসক মোখলেসুর রহমান সরকার। পরে সেখানে বঙ্গবন্ধু, পরিবারের নিহত সদস্য ও শহীদদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া এবং মোনাজাত করা হয়।
ফরিদপুর : জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন মৃধা, পুলিশ সুপার সুবাস চন্দ্র সাহা পিপিএম, খন্দকার মোহতেসাম হোসেন বাবর, সুবল চন্দ্র সাহা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
মৌলভীবাজার : শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন সদর আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দা সায়রা মহসীন, জেলা প্রশাসক তোফায়েল ইসলাম, জেলা পুলিশ সুপার শাহ্ জালাল প্রমুখ।
শেরপুর : বগুড়ার শেরপুর ডিজে হাইস্কুল খেলার মাঠে স্থানীয় এমপি হাবিবর রহমান আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন। এ সময় ইউএনও এ কে এম সরোয়ার জাহান, পৌর মেয়র আবদুস সাত্তার, ওসি খান মোঃ এরফান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
ভাঙ্গা : পুষ্পস্তবক দিয়ে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান উপজেলা পরিষদের পক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, ইউএনও প্রণব কুমার ঘোষ প্রমুখ।
নারায়ণগঞ্জ : পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানান নারায়ণগঞ্জের সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য হোসনে আরা বেগম বাবলী, জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া, পুলিশ সুপার মঈনুল হক সহ-প্রশাসনের অন্য কর্মকর্তারা। নারায়ণগঞ্জ শহরের ইসদাইর এলাকার পৌর স্টেডিয়ামে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়।
ফেনী : স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য জাহান আরা বেগম সুরমা, জেলা প্রশাসক আমিন উল আহসান, পুলিশ সুপার এস এম জাহাঙ্গীর আলম সরকার, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আজিজ আহাম্মদ চৌধুরী, সাবেক সংসদ সদস্য জয়নাল আবেদীন ভিপি, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বিকম, পৌর মেয়র হাজী আলাউদ্দিন প্রমুখ।
চাঁদপুর : জেলা স্টেডিয়ামে শিশু-কিশোর সমাবেশে সালাম গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক আবদুস সবুর ম-ল ও পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার। পরে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মনোজ্ঞ শারীরিক কসরত প্রদর্শন করে।