আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

বলিউড গান ভেঙে দিল সীমান্তের বেড়াজাল

একসঙ্গে নাচল ভারত-পাক সেনা

আলোকিত ডেস্ক
| আন্তর্জাতিক

সীমান্তের ওপার থেকে মুহুর্মুহু গুলি ছুটে আসছে। পাল্টা জবাব দিচ্ছেন ভারতীয় সেনারাওÑ ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে সংঘর্ষের এ ছবি দেখে অভ্যস্ত দুই প্রতিবেশী দেশ। কিন্তু সেই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে মিলিয়ে দিল বলিউডের গান! সেখানে গুলির আওয়াজ নেই, হুংকার-পাল্টা হুংকার নেই, নেই আরোপ-দোষারোপের পালা। উল্টো একটা ‘বন্ধুত্বের’ ছবিই ধরা পড়ল! তবে দুই দেশের কোনো প্রান্তেই নয়, এ ছবি ধরা পড়েছে সুদূর রাশিয়ায়।
সম্প্রতি রাশিয়ার চেবারকুল শহরে যৌথ মহড়া হয়ে গেল বেশ কয়েকটি দেশের সেনাবাহিনীর। পিসফুল মিশন-২০১৮ নামের ওই যৌথ মহড়ায় অংশ নেন চীন, রাশিয়া, কাজাখস্তান, তাজিকিস্তান, কিরগিজস্তান, ভারত এবং পাকিস্তানের সেনারা। সব মিলিয়ে প্রায় ৩ হাজার সেনা যোগ দিয়েছিলেন ওই মিশনে। সন্ত্রাস দমন নিয়ে নানা রকম মহড়া হয়। মহড়ার পর্ব শেষে সেনাদের একটা বিনোদনের ব্যবস্থা করা হয়।
বাজছিল বলিউডের গান। সেই গানের তালে পা মেলাতে দেখা গেল ভারত-পাকিস্তান সেনাদের। পাশাপাশি নাচছিলেন তারা। সঙ্গে চলছিল হই-হুল্লোড়। বাকি দেশের সেনারাও ছিলেন সেখানে। কিন্তু সবচেয়ে নজর কেড়েছিল দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দেশের জওয়ানদের একসঙ্গে নাচ। এ দৃশ্য কার্যত বিরল গোটা বিশ্বের কাছে। শুধু ভারত-পাকিস্তান নয়, গোটা বিশ্বের কাছে এ দুই দেশ মানেই একটা মারমার, কাটকাট ছবি। সেখানে রাশিয়ায় দুই সীমান্ত যেন মিলেমিশে একাকার হয়ে গেল। নেপথ্যে বলিউডের গান। সীমান্তের ওপারে পাকিস্তানে বলিউডের গান বেশ জনপ্রিয়। বহু পাকিস্তানি গায়ক ভারতে বেশ সুনাম অর্জন করেছেন। 
রাশিয়ায় বলিউডের গান বাজতেই আর নিজেদের ধরে রাখতে পারেননি পাকিস্তানি সেনারা। ভারতীয় সেনাদের সঙ্গে নাচে পা মেলান। নয়াদিল্লিতে রাশিয়ার দূতাবাস সেই ভিডিও টুইট করে। দুই দেশের যৌথ মহড়াকে স্বাগত জানিয়েছে চীন। সে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং বলেন, ‘ভারত-পাকিস্তানের যৌথ মহড়াকে স্বাগত। দক্ষিণ এশিয়ার শান্তির পক্ষে এ দুই দেশের সম্পর্ক খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’ দুই দেশের মধ্যে একটা মজবুত সম্পর্ক গড়ে ওঠার আশা প্রকাশও করেন তিনি। ২০১৭ সালে সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের সদস্য হয়েছিল ভারত-পাকিস্তান। এ প্রথম দুই দেশ যৌথ মহড়ায় অংশ নিল। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা