আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৩-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

আজ সিআইপি কার্ড পাচ্ছেন ১৭৮ ব্যবসায়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক
| অর্থ-বাণিজ্য

রপ্তানি বাণিজ্যে বিশেষ অবদান এবং বাণিজ্য সংগঠনের নেতা হিসেবে ১৭৮ ব্যবসায়ীকে বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বা সিআইপি মনোনীত করেছে সরকার। গেল ৩১ জুলাই তাদের তালিকা গেজেট আকারে প্রকাশ করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ২০১৫ সালে রপ্তানিতে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ১৩৬ জন এবং পদাধিকার বলে এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক ও ব্যবসায়ী নেতা হিসেবে ৪২ জন সিআইপি মর্যাদা পেয়েছেন। 

আজ রাজধানীর হোটেল র‌্যডিসন ব্লু’তে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সিআইপি মনোনীতদের মধ্যে কার্ড হস্তান্তর করা হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে কার্ড তুলে দেবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফালেয় আহমেদ।
এর আগে ২০১৪ সালে ১৬৪ জন সিআইপি হয়েছিলেন। সিআইপিরা এক বছর পর্যন্ত বিভিন্ন ধরনের সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন। 
বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, এ বছর ১৭৮ জন সিআইপির জন্য মনোনীত হলেও কার্ড প্রদান করা হবে ১৭৫টি। তিন ব্যবসায়ী একাধিক ক্ষেত্রে বিবেচিত হওয়ায় তিনটি কার্ড কম প্রদান করা হবে। রপ্তানিতে অবদান রাখা ২২টি ক্ষেত্রের ব্যবসায়ীরা সিআইপি মর্যদা পেয়েছেন। খাতগুলোর মধ্যে রয়েছে পাট ও পাট পণ্য, চামড়া, হিমায়িত খাদ্য, ওভেন পোশাক খাত, নিট পোশাক খাত, সিরামিক, প্লাস্টিক, ওষুধ, কৃষি ও কৃষি প্রক্রিয়াজাতসহ বিভিন্ন খাতের ১৩৬ রপ্তানিকার সিআইপি নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া পদাদিকার বলে ব্যবসায়ীদের মূল সংগঠন এফবিসিসিআইসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের ৪২ নেতা সিআইপি মর্যাদা পেয়ে থাকেন।
প্রসঙ্গত, কার্ড পাওয়ার পর থেকে এক বছরের জন্য সিআইপিরা ব্যবসা সংক্রান্ত ভ্রমণের সময় বিমান, রেল, সড়ক ও জলপথে সরকারি যানবাহনে আসন সংরক্ষণের অগ্রাধিকার পাবেন। সহজে ভিসা পাওয়ার জন্য তাদের অনুকূলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট দূতাবাসকে ‘লেটার অব ইন্ট্রোডাকশন’ দেবে। বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জ-২ ব্যবহারের সুবিধা এবং সচিবালয়ে প্রবেশের পাস পাবেন তারা। এছাড়া শিল্পবিষয়ক নীতিনির্ধারণী কোনো কমিটিতে সিআইপিদের সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে সরকার। বিদেশে রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে বৈঠকের সুযোগ পাবেন সরকারি নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে।