আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৪-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

বিআরটিএ’র অভিযানে ৪ লাখ ৩৮ হাজার ১৫০ টাকা জরিমানা

| খবর

বিআরটিএ’র ৯টি ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩-এর অধীনে ৩০৫টি মামলায় ৪ লাখ ৩৮ হাজার ১৫০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয় ও ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় দুই ড্রাইভার ও আট দালালকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দেওয়া হয় ও ২৪টি মোটরযানের কাগজপত্র জব্দ করে ১৫টি মোটরযান ডাম্পিং স্টেশনে পাঠানো হয়। সোমবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ফার্মগেট, মহাখালী, বিআরটিএ মিরপুর, বিআরটিএ উত্তরা ও বিআরটিএ ইকুরিয়া সার্কেলে এবং চট্টগ্রাম মহানগরীতে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। বিআরটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মুনিবুর রহমানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ছয়টি মামলায় ৬ হাজার টাকা জরিমান আদায় করে ও তিন দালালকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাজহারুল ইসলামের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত যাত্রাবাড়ী, গে-ারিয়া, সায়েদাবাদে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ৩৯টি মামলায় ১ লাখ ২২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় ও ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় এক ড্রাইভারকে কারাদ- দেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নাজমুল ইসলামের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত বিআরটিএ মিরপুর সার্কেল ও আশপাশের এলাকায় বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ২১ মামলায় ৩৮ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং চার দালালকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদ- দেন। 

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাখাওয়াত হোসেনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত শাহআলী, রূপনগর এলাকায় বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে ২৯ মামলায় ৪৬ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারাহ সাদিয়া তাজনিনের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত ফার্মগেট এলাকায় ৮৬ মামলায় ১১ হাজার ৩৫০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আহমেদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত মহাখালী এলাকায় ১৭ মামলায় ১৭ হাজার ৭০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এএফএম ফিরোজ মাহমুদের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত বিআরটিএ ইকুরিয়া সার্কেল ও আশপাশে এলাকায় ২৬ মামলায় ৫২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং এক দালালকে কারাদ- দেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জিয়াউল হক মীরের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত চট্টগ্রাম মহানগর ষোলশহর দুই নম্বর গেট এলাকায় ৪৬ মামলায় ৯৬ হাজার ৪০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং আট মোটরযান ডাম্পিং স্টেশনে পাঠায় এবং ১৬ মোটরযানের কাগজপত্র জব্দ করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এসএম মনজুরুল হকের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত চট্টগ্রাম মহানগরী এলাকায় ৩৫ মামলায় ৪৮ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় একজন ড্রাইভারকে কারাদ- দেন ও সাতটি মোটরযান ডাম্পিং স্টেশনে পাঠান এবং আটটি মোটরযানের কাগজপত্র জব্দ করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি