আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৫-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

বেড়েছে রেমিট্যান্স

নিজস্ব প্রতিবেদক
| অর্থ-বাণিজ্য

ইতিবাচক ধারায় রয়েছে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স। সদ্য শেষ হওয়া আগস্ট মাসে প্রবাসীরা ১৪১ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন, যা আগের মাস জুলাইয়ের তুলনায় ৯ কোটি ২৮ লাখ ডলার বেশি। অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে রেমিট্যান্স এসেছিল ১৩১ কোটি ৮১ লাখ ডলার। বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগের হালনাগাদ প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় মাস আগস্টে ব্যাংকিং চ্যানেলে ১৪১ কোটি ১০ লাখ মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা, যার বেশিরভাগই এসেছে দেশের কার্যরত বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে। আগস্টে বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে ১০২ কোটি ৭৭ লাখ মার্কিন ডলার। তার পরের অবস্থান রয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলো। এসব ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এসেছে ৩৫ কোটি ৭২ লাখ মার্কিন ডলার, বিশেষায়িত ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ১ কোটি ৫৩ লাখ মার্কিন ডলার এবং বিদেশি মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ১ কোটি মার্কিন ডলার সমপরিমাণ রেমিট্যান্স।

বরাবরের মতো এবারও একক ব্যাংক হিসেবে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স এসেছে বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের মাধ্যমে। এ ব্যাংকটির মাধ্যমে ২৯ কোটি ডলার। রেমিট্যান্স আহরণে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অবস্থানে রয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেড। এ ব্যাংকটির মাধ্যমে আগস্টে রেমিট্যান্স এসেছে ১৫ কোটি মার্কিন ডলার। এছাড়া সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে ১০ কোটি ৫৫ লাখ ডলার, জনতা ব্যাংকের মাধ্যমে ৮ কোটি ডলার, ডাচ্-বাংলা ৮ কোটি ৮৮ লাখ মার্কিন ডলার ও ব্যাংক এশিয়ার মাধ্যমে ৫ কোটি ৫৫ লাখ ডলার রেমিট্যান্স দেশে এসেছে।

রেমিট্যান্সের তথ্য পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গত চার বছরের মধ্যে দেশে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে। এ সময় রেমিট্যান্স এসেছিল ১ হাজার ৫৩১ কোটি ৬৯ লাখ মার্কিন ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠানোর পরিমাণ ছিল ১ হাজার ২৭৬ কোটি ৯৪ লাখ মার্কিন ডলার। সর্বশেষ জুনে শেষ হওয়া ২০১৭-১৮ অর্থবছরের ১ হাজার ৪৯৮ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিলেন প্রবাসীরা, যা তার আগের অর্থবছরের চেয়ে ১৭ দশমিক ৩ শতাংশ বেশি।