আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ৭-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

সুপ্রিমকোর্টের রায়

সমকামিতা অপরাধ নয় ভারতে

কলকাতা প্রতিনিধি
| প্রথম পাতা

সমকামিতা নিয়ে ঐতিহাসিক রায় দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিমকোর্ট। বৃহস্পতিবার এক রায়ে সুপ্রিমকোর্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ভারতে সমকামিতা অপরাধ নয়। সমকামীদেরও দেশে সমান অধিকার রয়েছে। এতদিন সমকামিতাবিরোধী যে আইন কার্যকর ছিল, সে আইন অযৌক্তিক বলে রায় দিয়েছেন শীর্ষ আদালত। সমকামিতা নিয়ে ভারতের সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বে গঠিত পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ এ ঐতিহাসিক রায় ঘোষণা করেন।

সুপ্রিমকোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র ছাড়াও এ বেঞ্চের অন্য বিচারপতিরা হলেনÑ বিচারপতি রোহিতার নরমান, বিচারপতি এএম খান উইলকর, বিচারপতি ডিওয়াই 

চন্দ্রচূড় এবং বিচারপতি ইন্দু মালহোত্রা।
ভারতীয় দ-বিধির ৩৭৭ ধারার বিরুদ্ধে প্রথম আপত্তি জানায় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা নাজ ফাউন্ডেশন। ২০০১ সালে তারা দিল্লি হাইকোর্টে ওই ধারাকে চ্যালেঞ্জ করে। এরপর ২০০৯ সালে দিল্লি হাইকোর্ট জানিয়েছিল, সমকামিতা কখনও অপরাধ হতে পারে না। সমকামিতাকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা অসাংবিধানিক। কিন্তু সুপ্রিমকোর্ট ২০১৩ সালে দিল্লি হাইকোর্টের সেই রায় খারিজ করে জানায়, সমকামিতা বা প্রান্তিক যৌনতাকে অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে। এরপর ২০১৭ সালে সুপ্রিমকোর্ট এক রায়ে ফের জানায়, সমকামী বা রুপান্তরকামীদের যৌনতা তাদের অধিকারের মধ্যে পড়ে এবং এর সাংবিধানিক বৈধতাও থাকা উচিত। এর পরই ৩৭৭ ধারা অবলুপ্তির দাবি ওঠে। এরপর জুলাই মাসে ফের শীর্ষ আদালত জানিয়ে দেন, পুরানো রায় কতটা সঠিক তা অবশ্যই খতিয়ে দেখতে হবে। আদালতে প্রশ্ন ওঠে, প্রথাবিরুদ্ধ যৌনতার বিষয়টি শুধু ব্যক্তিপছন্দের বিষয় হিসেবে বিবেচনা করলে হবে, না এর সঙ্গে জিনেরও সম্পর্ক আছে। ফলে এ অধিকার সুরক্ষিত হওয়া উচিত। বলা হয়, ৫০ বছর আগে যে নিয়ম চালু ছিল, আজ আর সেই নিয়মের বৈধতা নেই।
ভারতের শীর্ষ আদালত রায়ে জানিয়েছেন, সমকামিতা কোনোভাবেই অপরাধ নয়। সাধারণ মানুষের মতোই সমান অধিকার রয়েছে সমকামীদের। বাতিল করা হলো ভারতীয় দ-বিধির ৩৭৭ ধারা। ভারতীয় দ-বিধির ৩৭৭ ধারায় বলা হয়েছে, যদি একই লিঙ্গের মানুষ যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হয়, তাহলে তাদের যাবজ্জীবন বা ১০ বছরের জেল হতে পারে। সেই সঙ্গে জরিমানাও হতে পারে। কিন্তু অবশেষে সুপ্রিমকোর্ট রায়ে সাফ জানিয়ে দিয়েছে, ভারতে সবার সমান অধিকার রয়েছে। এখন থেকে স্বেচ্ছায় যৌন সম্পর্ক কোনোভাবেই অপরাধ হিসেবে বিবেচিত হবে না। তবে প্রাণীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক অপরাধ হিসেবে বিবেচ্য হবে। এখন থেকে সমকামীরা বিয়ে করতে পারবেন। শিশুও দত্তক নিতে পারবেন।
রায়ের পর বলিউডে উচ্ছ্বাস : সমকামিতা নিয়ে ভারতের সুপ্রিমকোর্টের ঐতিহাসিক রায়ের পর উচ্ছ্বসিত বলিউড। শীর্ষ আদালতের রায়ের পরই বলিউডের পরিচালক দীপা মেহতা থেকে করন জোহর, উদয় চোপড়ারা বেজায় খুশি। দীপা মেহতার ‘ফায়ার’ মুক্তির পর রীতিমতো আগুন জ্বলেছিল সারা ভারতে। রুপালি পর্দায় দুই নারীর প্রেমকে মেনে নিতে পারেনি ভারতীয় সমাজ। ‘ফায়ার’কে ঘিরে তখন সিনেমা হলে ভাঙচুর থেকে শুরু করে পোস্টারে আগুন ধরানো হয়েছিল। সেই সমকামিতা নিয়ে সুপ্রিমকোর্টের রায়ে স্বভাবতই খুশির জোয়ার বইছে বলিউডে। অভিনেতা অর্জুন কাপুর টুইট করে বলেছেন, শীর্ষ আদালতের এ রায় বলে দিচ্ছে, ভারতের মাটিতে এখনও কিছু সংবেদনশীল মানুষ রয়েছেন। অভিনেত্রী দিয়া মির্জা তার টুইটে লিখেছেন, এতদিনে সমান অধিকার পেল ভারতীয়রা। অভিনেতা আয়ুষ্মান খুরানা টুইটে লিখেছেন, উন্নতমনা ভারতে আজ নতুন সূর্যোদয় হলো। অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর টুইটে লিখেছেন, সমকামীদের অবাধ এবং স্বাধীনতা স্বীকৃতির সঙ্গে সঙ্গে দেশবাসী আবারও একবার নতুন করে স্বাধীনতার স্বাদ পেলেন। রায়কে স্বাগত জানিয়ে অভিনেতা অভিষেক বচ্চন টুইটে লিখেছেন, ঐতিহাসিক এ রায়কে স্বাগত জানাই। অভিনেতা জন আব্রাহামও টুইট করে এ রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন। অভিনেত্রী হুমা কুরেশি টুইটে লিখেছেন, শীর্ষ আদালতের এ রায়ে আমি গর্বিত। অভিনেত্রী ও পরিচালক কঙ্কনা সেনশর্মা টুইটে লিখেছেন, আমাদের জয় হলো। এখন এলজিবিটি কমিউনিটিও সাধারণ মানুষের মতোই থাকতে পারবেন। অভিনেত্রী সোনম কাপুর শীর্ষ আদালতের এ রায়কে স্বাগত জানিয়ে বলেন, এজন্যই ভারতকে এত ভালোবাসি। এখন থেকে সবাই স্বাধীনভাবে বাঁচতে পারবে।