আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১০-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

আত্মবিশ্বাস নিয়েই এশিয়া কাপ মিশনে মাহমুদউল্লাহ

স্পোর্টস রিপোর্টার
| খেলা

চোটের কালো ছায়া ঘিরে ধরেছিল বাংলাদেশ দলকে। সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের চোট নিয়ে ছিল দুশ্চিন্তা। তবে আপাতত সেই মেঘ সরে গেছে অনেকটা, জাতীয় দলের চিকিৎসক ও টিম ম্যানেজমেন্ট বলেছে; সাকিব-তামিম শুরু থেকে খেলবেন বলেই তারা আশাবাদী। আরব আমিরাতের উদ্দেশে দেশ ছাড়ার আগে সেই আশাবাদ সঞ্চারিত হলো মাহমুদউল্লাহর কণ্ঠেও।
মাত্রই সিপিএল খেলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ থেকে দেশে ফিরেছেন মাহমুদউল্লাহ। দলের সঙ্গে এবার যাচ্ছেন আমিরাতে, মিশন এশিয়া কাপ। সর্বশেষ আসরে নিজেদের মাটিতে ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ, সেটি ছিল টি-টোয়েন্টি। দেশের বাইরে এশিয়া কাপে অবশ্য বড় কিছু করা হয়নি এখনও। মাহমুদউল্লাহ আত্মবিশ্বাসী, এবার ভালো কিছুই হবে, ‘যদি আত্মবিশ্বাসের কথা বলি, আমরা দল হিসেবে খুব ভালোভাবে যাচ্ছি আমার মনে হয়। কারণ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বশেষ সিরিজে খুব ভালো ক্রিকেট খেলে আমরা সিরিজ জিতেছি। আর এশিয়া কাপের কথা যদি বলি, গেল এশিয়া কাপ আমাদের ভালো গেছে। আমরা দুইটি এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলেছি। এর সঙ্গে এটাও বলব, প্রতিটি দলই ভালো এবং সবাই ভালো ক্রিকেট খেলছে। প্রতিটি ম্যাচই তাই আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, প্রতিটি ম্যাচেই আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে।’
আমিরাতের গরম ও উইকেট নিয়ে বেশ কথা হচ্ছে। মাহমুদউল্লাহও গরমের ব্যাপারটা মাথায় রাখছেন, ‘আরব আমিরাতের কন্ডিশন একটু কম বা বেশি, আমাদের মতোই। কিন্তু গরমটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ হবে। কিন্তু আমরা পেশাদার ক্রিকেটার। আমাদের মানিয়ে নিতে হবে। রিলাক্স হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আফগানিস্তানের বিপক্ষে বা যে কোনো দলের বিপক্ষে আমাদের সেরাটাই খেলতে হবে। সব দলই আমাদের কাছে সমান।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজে মূলত পাঁচেই খেলেছেন। নিজের ব্যাটিং পজিশন নিয়ে আলাদা করে কোনো ভাবনা নেই তার, ‘ব্যাটিং পজিশনের কথা বলব, আমি আসলে দলের জন্য খেলি। দল যখন যেখানে আমাকে খেলাবে, আমি সেখানে খেলতেই প্রস্তুত।’ দুবাই-আবুধাবিতে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের খুব বেশি খেলার অভিজ্ঞতা নেই। মাহমুদউল্লাহ মনে করিয়ে দিলেনÑ  টাইগার দলের শীর্ষ তিনজনেরই সেটি আছে, ‘তামিম খেলছে, সাকিব খেলেছে, মুশফিক খেলেছে। ওখানকার কন্ডিশন সম্পর্কে আমরা জানি।