আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১১-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

৩০ অক্টোবরের পর জাতীয় নির্বাচনের তফসিল

জানালেন ইসি সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক
| প্রথম পাতা

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ৩০ অক্টোবরের পর ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ। তিনি বলেন, ৩০ অক্টোবর কাউন্ট-ডাউন শুরু হবে। তারপর যেকোনো সময় তফসিল হবে। তবে কবে হবে তা নির্ধারণ করবে কমিশন। সোমবার রাজধানীর আগারগাঁও 

নির্বাচন কমিশন ভবনে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। 
সচিব বলেন, তফসিল ঘোষণার পর ভোটগ্রহণে তালিকা প্রকাশ ও প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হবে। এছাড়া প্রিসাইডিং ও পোলিং অফিসারদের তালিকা প্রণয়ন করা এবং তাদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। কেননা অনেকেই বদলি অথবা অবসরে চলে যাবেন।
সব দল ভোটে আসবে আশা করে সচিব বলেন, রাজনৈতিক দল মানেই হলো নির্বাচন করা, নির্বাচনের মাঠে থাকা। আমরা আশা করব, সব রাজনৈতিক দল আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। সংসদ নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ৪১ লাখ জানিয়ে তিনি বলেন, এরই মধ্যে ৩০০ আসনের ভোটার তালিকার সিডি প্রস্তুত করা হয়েছে। ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই তা জেলা এবং উপজেলায় পাঠানো হবে।
৫ আগস্ট ভোট কেন্দ্রের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে জানিয়ে সচিব বলেন, এসব নিয়ে আপত্তি বা আবেদন-নিবেদন, বাড়ানো বা কমানো, স্থানান্তরের ওপর ৩০ আগস্টের মধ্যে দরখাস্ত চেয়েছিলাম। অনেক দরখাস্ত পেয়েছি। সেগুলো বিবেচনা করা হচ্ছে। ভোটের প্রস্তুতির বিষয়ে তিনি বলেন, একাদশ সংসদ নির্বাচনে ৪০ হাজার ভোট কেন্দ্রে প্রায় দুই লাখ ভোটকক্ষ থাকবে। এক্ষেত্রে ৪০ হাজার প্রিসাইডিং অফিসারসহ সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার নিয়ে কয়েক লাখ ভোট গ্রহণ কর্মকর্তার প্রয়োজন হতে পারে। তিনি বলেন, জাতীয় নির্বাচন অনেক বড় একটি কাজ। আমি আগেও বলেছি তফসিল ঘোষণার আগে যেসব কাজ থাকে তার ৮০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। তফসিল ঘোষণার পর ভোটগ্রহণ কর্মকর্তাদের তালিকা প্রণয়ন করা এবং তাদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।