আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১১-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

যমুনায় থামছে না বালু উত্তোলন

হুমকিতে এনায়েতপুর বাঁধসহ বিভিন্ন স্থাপনা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
| দেশ

সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার যমুনা নদীর সদিয়াচাঁদপুর এলাকায় অবৈধ বালু উত্তোলন থামছেই না। এতে নদীর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে পশ্চিম পাড়ে ¯্রােতের আঘাত হানায় এনায়েতপুর থানার এনায়েতপুর স্পার বাঁধ, খাজা ইউনুছ আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বিশ্ববিদ্যালয় হুমকির মুখে পড়েছে। এরই মধ্যে ব্রাহ্মণগ্রাম থেকে দক্ষিণে জালালপুরজুড়ে ৫ কিলোমিটারে ভাঙন তীব্রতর আকার ধারণ করায় সংকিত এলাকার মানুষ। স্থানীয়রা জানায়, চৌহালী উপজেলার সদিয়াচাঁদপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে যমুনা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন ব্যবসার সঙ্গে কিছু প্রভাবশালী চক্র জড়িত। তারা উপজেলা প্রশাসনের এক শ্রেণীর অসাধু কর্মচারীদের সঙ্গে যোগসাজশে বছরে কোটি কোটি টাকার বালু উত্তোলন করছে। স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীর নেতৃত্বে গত দুই মাস ধরে ড্রেজার দিয়ে যমুনার মাঝ নদী সদিয়াচাঁদপুর ইউনিয়নের উড়াপাড়া, মৌহালী, ইজারাপাড়াসহ আশপাশের এলাকাজুড়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এ অবৈধ বালু বিক্রি হচ্ছে নদীর পশ্চিম পাড়ের এনায়েতপুর থানার দুটি ও বেলকুচি উপজেলার নৌঘাট এলাকার স্থানে। এরপর বালু উত্তোলন কিছুদিন বন্ধ থাকার পর ফের পুরোদমে তিনটি ড্রেজার দিয়ে প্রতিদিন বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। ব্রাহ্মণগ্রামের আবদুল মালেক, এলাহী হোসেন, আরকান্দির মোকছেদ আলী, রহমান মিয়াসহ অনেকেই জানান, ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের কারণে এ নদী ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। এ বিষয়ে চৌহালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আনিসুর রহমান বলেন, অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধে চলতি মাসেও জড়িতদের মধ্যে একাধিক ব্যক্তিকে জেল ও জরিমানা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি জানান।