আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১১-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

ভাঙনের মুখে নড়িয়ার ৫০ শয্যার হাসপাতাল

শরীয়তপুর প্রতিনিধি
| দেশ

সর্বনাশা পদ্মা গ্রাস করছে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসেবার ৫০ শয্যার হাসপাতালটি। পদ্মার কড়াল গ্রাসে সোমবার সকালে নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মসজিদ ও গাড়ির গ্যারেজ বিলীন হয়ে যায়। মূল নতুন ভবনের ২৫ শতাংশের নিচের মাটি সরে যাওয়ায় যে কোনো সময় ধসে পড়ার আশঙ্কায় রয়েছে। 
স্থানীয়রা বলছেন, যে কোনো সময়ে নতুন দ্বিতল ভবনটি পদ্মায় হারিয়ে যাবে। পদ্মার আগ্রাসনে বিগত প্রায় তিন মাসে নড়িয়া উপজেলার সাড়ে ৪ সহ¯্রাধিক পরিবারের পকা বাড়িসহ আবাস স্থল, দেড় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদসহ কাঁচা-পাকা বহু সড়ক বিলীন হয়েছে। এবার উপজেলার প্রায় সাড়ে ৩ লাখ মানুষের স্বাস্থ্যসেবার ৫০ শয্যার হাসপাতালটি গ্রাস করছে পদ্মা। শরীয়তপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রহমান বলেন, আপদকালীন ব্যবস্থা হিসেবে জিওব্যাগ ফেলে হাসপাতাল রক্ষার চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে পদ্মার ¯্রােতের গতি স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হওয়ায় তা খুব একটা কাজে আসবে বলে মনে হচ্ছে না। তবে পদ্মার ডান তীর রক্ষাবাঁধ প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে আগামী বছর ভাঙন রোধ করা সম্ভব হবে।