আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১২-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

‘ভারতের বিপক্ষে সব ম্যাচই বড়’

স্পোর্টস ডেস্ক
| খেলা

পাকিস্তান-ভারত দ্বৈরথ মানেই উত্তেজনা ও বিশেষ লড়াই। তা সাধারণ সমর্থকের মতো পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদও স্বীকার করলেন। দুই দলের সর্বশেষ দেখা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে, যে লড়াইয়ে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জিতে পাকিস্তান। ওই টুর্নামেন্টের পর এশিয়া কাপে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে দুই দল। প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিচারে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির চেয়ে অবশ্যই পিছিয়ে এশিয়া কাপ। কিন্তু অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ মনে করেন, যে কোনো টুর্নামেন্টেই ভারতের বিপক্ষে সব ম্যাচ বড় এবং বিশেষ কিছু।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে ১৫ সেপ্টেম্বর শুরু হতে যাওয়া এশিয়ার বিশ্বকাপ হিসেবে খ্যাত এশিয়া কাপে একই গ্রুপে খেলবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশ ভারত-পাকিস্তান এবং বাছাইপর্ব উত্তীর্ণ হয়ে আসা দুর্বল হংকং। সংক্ষিপ্ত সময়ের এ টুর্নামেন্টে এশিয়ার জায়ান্ট দুই দেশ একে অপরের বিপক্ষে একাধিক ম্যাচে মোকাবিলা করতে পারে। হংকংয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে নিজেদের এশিয়া কাপ মিশন শুরু করবে পাকিস্তান। এ ম্যাচের সহজ জয় দিয়ে ভারতের বিপক্ষেও একই ধারা অব্যাহত রাখার আশা করছে তারা। সরফরাজ বলেন, ‘ভারতের বিপক্ষে সব ম্যাচই অতিরিক্ত গুরুত্ব বহন করে। মোমেন্টামটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সুতরাং, আমাদের লক্ষ্য থাকবে প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়া এবং ভারতের বিপক্ষেও জেতা।’ সরফরাজের কাছে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জয় এখন অতীত এবং সামনে এগিয়ে যেতে এটা দলকে সাহায্য করবে না। পাকিস্তান অধিনায়ক আরও বলেন, ‘ওই ম্যাচটি এখন ইতিহাস। প্রায় দেড় বছর আগে অনুষ্ঠিত হয়েছে ম্যাচটি। সুতরাং, ওই সাফল্য আমাদের খুব বেশি বিবেচনায় আনা ঠিক হবে না। পেশাদার সব দলই অতীতকে পেছনে রাখে এবং সামনের দিকে অগ্রসর হয়। উভয় দল একই কাজ করবে।’
সংক্ষিপ্ত সময়ের বিবেচনায় ২০১৮ এশিয়া কাপে কোনো প্রতিপক্ষকেই পাকিস্তানের হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ নেই। সরফরাজ আরও বলেন, ‘আমি সব দলই দেখেছি এবং সবগুলোই অত্যন্ত শক্তিশালী, কোনো দলকেই হলকাভাবে নেওয়া যাবে না। টুর্নামেন্টের শিরোপা জিততে হলে সব দলকেই ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে।’ ৯ বছর ধরে টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর বিপক্ষে অধিকাংশ ম্যাচই এখানে খেলতে বাধ্য হওয়ায় প্রতিপক্ষ দলগুলোর চেয়ে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কন্ডিশন থেকে বাড়তি সুযোগ পাবে পাকিস্তান।