আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২২-১১-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

ঘাড়ব্যথায় ফিজিওথেরাপি

প্রফেসর আলতাফ হোসেন সরকার
| সুস্থ থাকুন

বিভিন্ন গবেষণায় বলা হয়েছে, চিকিৎসা বিজ্ঞানের দ্রুত প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে ঘাড়ের ব্যথার জন্য ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং জায়গা করে নিয়েছে তার নিজস্ব আঙ্গিকে। ঘাড়ব্যথার কষ্ট থেকে ব্যথামুক্ত থাকার জন্য সঠিক চিকিৎসা গ্রহণ করুন এবং কষ্টমুক্ত থাকুন

৩৭ বছর বয়স। মুক্তা ইয়াসমিন। কাজ করেন মোবাইল অপারেটর কোম্পানিতে। সাড়ে তিন বছর ধরে তার ঘাড়ের (নেক) ডানদিকে ব্যথা। মাঝে মাঝে চিন চিন করে। ব্যথা ঘাড় থেকে বাহুতে, বুকের সামনে এবং ডান হাতের আঙুলে ব্যথায় জিন জিন করে। ফিজিক্যাল পরীক্ষায় দেখা গেল, ডান এবং বাঁদিকে সম্পূর্ণ সালাম ফিরাতে পারে না এবং ব্যথা হয়। মাথা পেছন দিকে সম্পূর্ণ নিতে পারে না এবং ব্যথা হয়। তার থুতনি এবং মাথা কিছুটা সামনের দিকে এসেছে। ঘাড়ের দুই পাশের নেক মাসেল এবং ট্রাপিজিয়েস মাসেল টেন্টার। শক্তিও কিছুটা কম।

আমি সব সময় লিখে থাকি, ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা শুরুর আগেই অ্যাসেসমেন্ট সঠিক রোগ চিকিৎসার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজন। আজও আমি তাই বলব। আমি মনে করি, এ রোগীর জন্য সঠিক ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা তার রোগের উপশম হবে বলে। এ রোগীর সব কষ্টের মূল কারণ হলো, মাংসের দুর্বলতা, লিগামেন্টের অসুস্থতা ও নেকের কার্ভেচারের পরিবর্তন এবং সর্বোপরি মাসেল ইমব্যালেন্স, যা তাকে কাজের সময় এন্টিরিওর হেড পোশ্চার তৈরি করে। প্রথমেই খুব সুন্দর করে সফট টিস্যু মুবালাইজেশন করতে হবে। তারপর মেন্যুয়াল থেরাপির মাধ্যমে তার পোশ্চার কারেকশন করতে হবে এবং সঙ্গে সঙ্গে স্ট্যাবেলাইজিং এক্সারসাইজের মাধ্যমে এ করেকশনকে ধরে রাখতে হবে। তার সঙ্গে লো-লেভেল লেজার থেরাপি, আল্ট্রাসাউন্ড থেরাপি ব্যবহার করতে হবে এবং ওয়াক্সপ্যাক দিয়ে তার ঘাড়ের স্ট্রোকিং করে দিতে হবে। এরপর অ্যাপ্লাইড কাইনিসিওলজি বেজড এক্সারসাইজের মাধ্যমে নেক ও আশপাশের মাসেলের শক্তি বাড়াতে হবে। 
ঘাড়ের ব্যথা প্রতিরোধ চিকিৎসার চেয়ে অনেক উপকারী। যেমনÑ সঠিকভাবে ঘুমানো, কম্পিউটার ব্যবহার করার সময় চোখের লেভেল ঠিক রাখা, সঠিক ভঙ্গিতে ফোনে কথা বলা, প্রচুর পানি পান করা, হাতে ওজন ব্যবহার করার সময় সঠিক নিয়ম মেনে চলা, মাথা-ঘাড় ও কাঁধের সঠিক ভঙ্গি মেনে চলা, ঘাড়ের মাংসের ট্রিগার পয়েন্ট রিলিফ করা, হুইপ্লাস প্রতিরোধ করা, একই অবস্থায় বেশিক্ষণ কাজ না করা, প্রতিদিন ঘাড়ের মাংসের নিয়মিত স্ট্রেসিং ও স্ট্রেন্দেনিং করা।
খাদ্য তালিকায় একটু পরিবর্তন আনতে হবে। যেমন- প্রচুর পানি খেতে হবে, দুধ বা দুগ্ধজাতীয় খাবার বেশি খেতে হবে, সঙ্গে আদা, পেঁপে ও হলুদ খেতে হবে। সুপ্রিয় পাঠক, আপনারা যারা এ রোগে ভুগছেন তারা এ চিকিৎসার মাধ্যমে আশা করি দ্রুত আরোগ্য লাভ করবেন। আমরা বিভিন্ন গবেষণায় জানতে পেরেছি যে, এখনও এমন ওষুধ তৈরি হয়নি যে ওষুধ খেলে আপনার মাংসপেশি লম্বা হবে, শক্তিশালী হবে এবং আপনার জয়েন্ট মবিলিটি বেড়ে যাবে এবং আপনার এন্টিরিওর হেড পোশ্চার করেকশন হবে। সুতরাং সম্পূর্ণ চিকিৎসা পেতে হলে আপনাকে সঠিক মোবালাইজেশন, মেন্যুপুলেশন, স্ট্রেসিং এবং স্ট্রেন্দ্রেনিংয়ের মতো চিকিৎসা করতে হবেই। নইলে একসময় দেখা যাবে, আপনি ঘাড় ও মাথা সঠিকভাবে ব্যবহার করে কাজ করতে পারছেন না।
বিভিন্ন গবেষণায় বলা হয়েছে, চিকিৎসা বিজ্ঞানের দ্রুত প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে ঘাড়ের ব্যথার জন্য ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং জায়গা করে নিয়েছে তার নিজস্ব আঙ্গিকে। ঘাড়ব্যথার কষ্ট থেকে ব্যথামুক্ত থাকার জন্য সঠিক চিকিৎসা গ্রহণ করুন এবং কষ্টমুক্ত থাকুন। দৈনন্দিন জীবনে কাজকর্ম এবং চলাফেরায় সঠিক ভঙ্গি মেনে চলবেন। আমার এ ছোট লেখার মাধ্যমে ধারণা দিতে চেয়েছি যে, আপনি আপনার ঘাড়ব্যথার কষ্টের জন্য কী ধরনের চিকিৎসা নিতে পারেন। সঠিক চিকিৎসা নিন এবং কষ্টমুক্ত থাকুন।

প্রফেসর আলতাফ হোসেন সরকার
ব্যাকপেইন বিশেষজ্ঞ
লেজার ফিজিওথেরাপি সেন্টার
০১৭৬৫৬৬৮৮৪৬