আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১৩-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

বেনাপোল পেট্রাপোল বন্দরে ভারত-বাংলাদেশ যৌথ বৈঠক

বেনাপোল প্রতিনিধি
| অর্থ-বাণিজ্য

বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণে দুই দেশের প্রতিনিধিদের যৌথ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও পাসপোর্ট যাত্রীদের নিরাপদ এবং স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াতে দুই দেশের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীরা একমত পোষণ করেছেন। বুধবার দুপুর ১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভারতের পেট্রাপোল বন্দর অডিটরিয়ামে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক (ট্রাফিক) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে ২৫ সদস্যের প্রতিনিধি দলে ছিলেন বেনাপোল কাস্টমসের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা, বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন, সহসভাপতি নূরুজ্জামান, সেক্রেটারি ইমদাদুল হক লতা, সাবেক সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সামসুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক নাজিম উদ্দীন প্রমুখ। ভারতের পক্ষে পেট্রাপোল কাস্টমসের সহকারী কমিশনার রমেশ্বর মিনার নেতৃত্বে ছিলেন অলইন্ডিয়া মোটর কংগ্রেস ও ফেডারেশন অব ওয়েস্ট বেঙ্গল ট্রাক অপারেটর অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মহেন্দ্র সিং, অলইন্ডিয়া মোটর কংগ্রেসের বনগাঁ শাখার সেক্রেটারি দীলিপ দাস, পেট্রাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি রাজু গোস্বামী, পেট্রাপোল বন্দর সিঅ্যান্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনে সেক্রেটারী কার্তিক চন্দ্র প্রমুখ। জানা যায়, বেনাপোল বন্দর থেকে ভারতের বাণিজ্যিক শহর কলকাতার দূরত্ব মাত্র ৮৩ কিলোমিটার।  যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হওয়ায় বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে প্রথম থেকে ব্যবসায়ীদের বাণিজ্যে আগ্রহ বেশি। বাণিজ্য সম্প্রসারণ ও পাসপোর্ট যাত্রীদের স্বাচ্ছন্দ্যে যাতায়াতে দুই দেশের প্রশাসনিক কর্মকর্তা এবং ব্যবসায়ীরা একমত পোষণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এদিকে বাংলাদেশি প্রতিনিধি দল দুপুরে বেনাপোল চেকপোস্ট নোম্যান্সল্যান্ডে পৌঁছালে ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমসের সহকারী কমিশনার রমেশ্বর মিনাসহ ব্যবসায়ী নেতারা তাদের অর্ভ্যথনা জানান। পরে অতিথিদের পেট্রাপোল বন্দর অডিটরিয়ামে বৈঠক স্থলে নিয়ে যাওয়া হয়। বৈঠক শেষে বিকাল ৪টায় বাংলাদেশ প্রতিনিধি দল ফিরে আসে।