আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১৫-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

মারাত্মক ক্ষতিকর ‘এনপিএস’

আলোকিত ডেস্ক
| শেষ পাতা

রাজধানীতে কয়েক দিনে আটক হওয়া নতুন মাদক ‘খাট’ বা ‘এনপিএস’ (নিউ সাইকোট্রফিক সাবস্টেন্সেস) মানবদেহের জন্য ভয়াবহ ক্ষতিকর বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, এ ভেষজ অন্য প্রাণঘাতী মাদকের মতোই ভয়ঙ্কর।
এনপিএসকে দেখে অনেকেইে ‘গ্রিন টি’ মনে করে ভুল করতে পারেন। তবে আন্তর্জাতিকভাবে এ ভেষজ সি ক্যাটাগরির মাদক হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। অনেকেই একে ‘আরবের চা’ বলেন। মাদকসেবীরা এ পাতা চিবিয়ে বা পানিতে ফুটিয়ে চায়ের মতো পান করে।
এ মাদক মূলত সোমালিয়া ও ইথিওপিয়াসহ পূর্ব আফ্রিকার আরও কয়েকটি দেশে উৎপন্ন হয়। সেখান থেকে পাঠানো হয় মধ্যপ্রাচ্যসহ ইউরোপ, আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ায়।
এনপিএস মানুষের শারীরিক ও মানসিক দুইভাবেই ক্ষতি করে থাকে। এ কারণে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ১১০টি দেশ একে মাদক হিসেবে চিহ্নিত করে তাদের দেশে নিষিদ্ধ করেছে। জাতিসংঘের মাদক এবং অপরাধ ইউনিটের প্রতিবেদনে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।
মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা জানিয়েছে, মাদক চোরাচালানের আন্তর্জাতিক চক্র বাংলাদেশকে এনপিএস পাচারের রুট হিসেবে ব্যবহার করছে। একসময় ব্রিটেনের শতাধিক ক্যাফেতে এ ভেষজ অবাধে বিক্রি হতো। পরে এর ভয়াবহতা উপলব্ধি করতে পেরে ২০১৪ সালেই ব্রিটেনসহ কয়েকটি ইউরোপিয়ান দেশ এর আমদানি ও ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।
বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এর প্রাকৃতিক স্টিমুলেটিং উপাদান মুহূর্তেই সেবনকারীকে চাঙ্গা করে তোলায় তারা এটিকে চা-কফির মতোই মনে করে।
এনপিএসে মানুষের মধ্যে যে প্রভাব পড়ে সেগুলো হলোÑ মানুষ নিজের প্রতি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। প্রচুর অর্থহীন কথা বলে। বিভ্রান্ত ও নির্লিপ্ত হয়ে যায় এবং নিজেকে নিঃসঙ্গ মনে করে। ঘুমের সমস্যা হয়। তীব্র মানসিক উদ্বেগ ও আগ্রাসনে আক্রান্ত হয়। বারবার চাবানোর ফলে দাঁত সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে যায়। নিয়মিত পানে মুখে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এবং যৌনক্ষমতা হ্রাস পায়। সূত্র : বিবিসি