আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ১৫-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

আজ জয়ে চোখ বাংলাদেশের

আহসান হাবিব সম্রাট
| প্রথম পাতা

মরুশহর দুবাইয়ে পর্দা উন্মোচন হতে যাচ্ছে ১৪তম এশিয়া কাপ আসরের। ১৯৯৫ সালের পর আবারও সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হচ্ছে যাচ্ছে এশিয়ান ক্রিকেট শ্রেষ্ঠত্বের এ টুর্নামেন্ট। ‘চেনা প্রতিপক্ষ’ বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা ম্যাচ দিয়েই মাঠে গড়াচ্ছে ৬ দেশকে নিয়ে অনুষ্ঠেয় টুর্নামেন্টের মূল পর্বের। এশিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের এ আসরকে ২০১৯ সালের বিশ্বকাপের প্রস্তুতির মঞ্চ হিসেবে দেখছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা ও শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আজ টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচটি মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৫টায়। স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল গাজী টেলিভিশন ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে।

তিন ফরম্যাট মিলিয়ে গত দুই বছরে ১৬ বার শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হয়েছে টাইগার দল। স্বাভাবিকভাবেই দুই দলের শক্তিমত্তা সম্পর্কেই ভালো ধারণা রয়েছে উভয় দলের। আর সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার লড়াই পেয়েছে অন্যরকম উত্তেজনা। সেটা টাইগার দলের সাবেক কোচ হাথুরুসিংহের কারণেই। দক্ষিণ আফ্রিকায় ব্যর্থ সফর শেষে বাংলাদেশ দল থেকে নিজ দেশ শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব নেন হাথুরু। তখন থেকেই বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচেই অবধারিত দুটি শব্দ ‘হাথুরুসিংহে’ ও ‘প্রতিশোধ’। তবে সাবেক শিষ্যদের বিপক্ষে প্রথম সফলতা ছিল হাথুরুর। জানুয়ারিতে ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ের পাশাপাশি টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজও জয় করে দেশে ফেরে শ্রীলঙ্কা। ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ প্রথম মুখোমুখিতে শ্রীলঙ্কাকে হারালেও লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে ও ফাইনালে লঙ্কানদের কাছে পরাজিত হয়। তবে মার্চে নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েই ফাইনালে ওঠে বাংলাদেশ। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের ওই টুর্নামেন্টে দুইবারের দেখায় দুবারই জিতেছিলেন সাকিব আল হাসানরা। সম্প্রতি ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে গিয়ে ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে দারুণ আত্মবিশ্বাস নিয়েই এশিয়া কাপে অংশ নিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। আর জয় দিয়েই আসরটি শুরু করতে চান টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি। দেশ ছাড়ার আগে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘যে কোনো ইভেন্টেই প্রথম ম্যাচটা গুরুত্বপূর্ণ। আমরা এশিয়া কাপে কেমন করব, সেটা নির্ভর করবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের পারফরম্যান্সের ওপর। ওদের বিপক্ষে আমরা যদি ম্যাচটা জিততে পারি, তাহলে আমরা শুরুতেই আত্মবিশ্বাস পেয়ে যাব। কারণ আমাদের আত্মবিশ্বাস এখন অনেক উঁচুতে। আমাদের সামর্থ্য আছে ভালো খেলার। প্রথম ম্যাচটা জিতলে সম্ভাবনা আছে অনেক দূর যাওয়ার।’ আর এশিয়া কাপ দিয়েই বিশ্বকাপের প্রস্তুতি শুরু করতে চায় বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বলেন, ‘এশিয়া কাপে নিকট অতীতে আমাদের ভালো কিছু স্মৃতি আছে। আমরা গত তিন আসরের দুটিতে ফাইনাল খেলেছি। এশিয়া কাপে অংশ নেওয়া ৬ দলের মধ্যে র‌্যাঙ্কিংয়ে আমরা তৃতীয় সেরা। শক্ত দুই দলের মুখোমুখি হতে যাচ্ছি আমরা। তবে অতীত ইতিহাস আমাদের উৎসাহ এবং আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে। সাধারণত এ আসর থেকেই সবার চোখ থাকে বিশ্বকাপের দিকে। এ টুর্নামেন্ট দলকে অনুপ্রেরণা জোগাবে। আমাদের দলের অনেকের বিশ্ব প্রতিযোগিতায় লড়াইয়ের জন্য এটা অনেক সাহায্যে করবে।’ বাংলাদেশ অধিনায়কের মতো একই ভাবনা শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক ম্যাথিউসেরও, ‘মহাদেশীয় এ প্রতিযোগিতা আমাদের শক্তিশালী কিছু দলের বিপক্ষে লড়াই করায় সুযোগ করে দিচ্ছে। আমাদের দলটাকে পরীক্ষা করার দারুণ সুযোগ এটা। বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুত হওয়ারও ভালো একটি ধারাবাহিক প্রক্রিয়া এশিয়া কাপ। প্রতিযোগিতায় আমাদের চেয়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়ে থাকা তিনটি দল আছে। তাই আমাদের র‌্যাঙ্কিং ভালো করার সুযোগ বলতে হবে এশিয়া কাপকে।
এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটিতে জয় চাইলেও সাবেক কোচের বিপক্ষে প্রতিশোধের কিছু নেই বলে জানিয়েছেন টাইগার ওপেনার তামিম ইকবাল। লঙ্কানদের বিপক্ষে ম্যাচ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমরা চন্দিকার (হাথুরুসিংহের) সঙ্গে অসাধারণ কিছু মুহূর্ত কাটিয়েছি। চার-পাঁচ বছর কাজ করলে সম্পর্ক ভালো-খারাপ হতে পারে। কোচ হিসেবে তিনি আমাদের সঙ্গে অসাধারণ কাজ করেছেন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার কোনো ভাবনাই নেই আমাদের। আমরা অবশ্যই সাবেক কোচকে হারাতে চাই। তবে তা প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য নয়।’ তবে হাথুরুর মতো কোচ থাকায় শ্রীলঙ্কাকে হারাতে ভালো খেলার বিকল্প নেই বলেও মনে করেন দেশসেরা ওপেনার তামিম। অন্যদিকে বাংলাদেশের বিপক্ষে আগে যা হয়েছে, সেটা নিয়ে ভাবনা নেই লঙ্কানদের। এশিয়া কাপে স্টিভ রোডসের শিষ্যদের বিপক্ষে লড়তে তৈরি শ্রীলঙ্কা। এরই মধ্যে বাংলাদেশকে ঘিরে তারা পরিকল্পনাও তৈরি করেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির ব্যাটসম্যান কুশল পেরেরা। বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে দেশটির তারকা ব্যাটসম্যান কুশল পেরেরা বলেন, ‘দল হিসেবে আমরা দারুণ আত্মবিশ্বাসী। নিজেদের ওপর আমাদের আস্থা প্রবল। আমরা একটি করে ম্যাচ ধরে এগোতে চাই। হোমওয়ার্ক সেরে নিয়েছি আমরা। প্রথমে আমরা বাংলাদেশের মুখোমুখি। চেষ্টা করব, নিজেদের সেরাটা দিতে, তার পর দেখা যাক ফল কেমন হয়।’ একটা জায়গায় অবশ্য দুই দলই সমান। এশিয়া কাপ শুরুর আগে দুই দলকেই লড়তে হচ্ছে ইনজুরির সঙ্গে। টাইগার দলের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে খেলতে হচ্ছে ইনজুরি নিয়েই। আর ওপেনার তামিম ইকবালও মাঠে নামবেন আঙুল চোট নিয়ে। টাইগার দলের আরেক টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্তও আঙুলে চোট পেয়েছেন। অন্যদিকে চোটের কারণে লঙ্কান দল থেকেই ছিটকে গেছেন দুই ক্রিকেটার দিনেশ চান্দিমাল ও দানুষ্কা গুনাতিলকা। আঙুলের চোটের কারণে আগেই ছিলেন না চান্দিমাল। আর অনুশীলনে পিঠে চোট পাওয়ায় আসর থেকে ঝরে পড়তে হচ্ছে গুনাতিলকাকে। তার পরিবর্তে দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন আরেক ব্যাটিং অলরাউন্ডার শেহান জয়াসুরিয়া।