আজকের পত্রিকাআপনি দেখছেন ২১-০৯-২০১৮ তারিখে পত্রিকা

রংপুরে এরশাদ

নির্বাচনকালীন সরকারে থাকতে পারি

ষ রংপুর ব্যুরো
| প্রথম পাতা

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ বলেছেন, ‘আসন্ন সংসদ নির্বাচনে নির্বাচনকালীন সরকারে থাকতে বাধা নেই আমার। নির্বাচনকালীন সরকারে থাকতে পারি।’ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকা থেকে রংপুরে পৌঁছে সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এরশাদ বলেন, ‘নির্বাচনে আওয়ামী লীগের কাছে ১০০টি আসন চেয়ে তালিকা দেওয়া হবে। অবশ্যই এর মধ্যে ৭০টি আসন আমাদের দেওয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘আমি এবার তিন আসন থেকে নির্বাচন করবÑ ঢাকা-১৭, রংপুর-৩ এবং বাকিটা সময়ে বলে দেব। আমি রংপুরের ২২টি আসন ফেরত চাইব।’ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমি আগেও ইভিএমের পক্ষে ছিলাম না, এখন নেই। ইভিএমে কারচুপি হবে কিনা নিশ্চিত না।’ তিনি বলেন, ‘আমার মন্ত্রী হওয়ায় কোনো বাধা নেই। তবে রওশন এরশাদের 

সমস্যা আছে। কারণ, উনি নির্বাচনের শেষ পর্যন্ত বিরোধীদলীয় নেত্রী হিসেবে থাকবেন। সে কারণে আমি অবশ্যই মন্ত্রী থাকব।’ গণফোরাম নেতা ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে যে জোট হচ্ছে সে সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘যে কেউ জোট করতে পারে। বিএনপি সে জোটে যোগ দেয়নি, যোগ দেবে বলে শুনছি। তবে তাদের জোট কতখানি শক্তিশালী হবে জানি না। বিএনপি ওই জোটে গেলে আমরা আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোটে থেকে নির্বাচন করব।’
খালেদা জিয়ার চিকিৎসা সংক্রান্ত এক প্রশ্নের উত্তরে এরশাদ বলেন, ‘খালেদা জিয়া অসুস্থ কিনা জানি না। সরকার ইচ্ছে করলে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে পারে। এ ব্যাপারে আমার কিছু বলার নেই। বিএনপি নির্বাচনে এলে বা না এলে আমাদের কিছুই যায় আসে না। দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব এখন তারেক রহমান পালন করছে; ফলে তাদের সিদ্ধান্ত তারাই নেবে। তবে তারা যতই ঐক্য করুক, কোনো লাভ হবে না। কারণ, দেশের জনগণ তাদের বিশ্বাস করে না।’ এরশাদ সার্কিট হাউজে পৌঁছালে দলের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। পুলিশের একটি দল তাকে গার্ড অব অনার প্রদান করে। এ সময় জাপার কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, জাপা প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর (অব.) খালেদ, রংপুর মহানগর জাপা সভাপতি সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সাধারণ স¤পাদক এসএম ইয়াসিরসহ দলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।